শীতার্ত চার শতাধিক মানুষের মাঝে উজ্জ্বল হাসির দ্যুতি ছড়ালো সীপকস্

প্রকাশিতঃ 8:52 pm | December 11, 2022

বিশেষ সংবাদদাতা, কালের আলো:

সীমান্ত পরিবার কল্যাণ সমিতি (সীপকস্)। স্বকীয় আবহে রাঙিয়ে দিলো শীতার্ত ও দু:স্থ চার শতাধিক মানুষকে। ছড়িয়ে দিলো উজ্জ্বল হাসির দ্যুতি। মানবতার অনন্য আভায় উপস্থাপন করলো নিজেদের।

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)-এর তত্ত্বাবধানে পরিচালিত জনকল্যাণমূলক এই প্রতিষ্ঠানটি রোববার (১১ ডিসেম্বর) সকালে পিলখানাস্থ সদর বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়নের প্রশিক্ষণ মাঠে শীতার্ত ও দু:স্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করে।

সীমান্ত পরিবার কল্যাণ সমিতির (সীপকস্) প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল সাকিল আহমেদ’র পত্নী ডা. শাহনাজ সাকিল সীপকস-এর পক্ষ থেকে ৪ শতাধিক ভাগ্যবিড়ম্বিত মানুষের হাতে তুলে দেন শীতবস্ত্র। অনাবিল হাসি ফুটিয়ে তুলেন গরিব ও অসহায় মানুষের মুখে।

ডা. শাহনাজ সাকিলের নেতৃত্বাধীন (সীপকস্) দুর্যোগে-দুর্বিপাকে ত্রাণ বিতরণসহ নানা কর্মযজ্ঞে মানবতার প্রোজ্জ্বল আভায় নিজেদের উপস্থাপন করেছেন। ফলত তাদের দায়িত্বশীলতায় প্রশংসায় অনবদ্য আলাপচারিতা অসহায়ের মর্মমূল থেকেই উচ্চারিত হচ্ছে।

দারিদ্র্যের যাঁতাকলে পিষ্ট হয়ে এসব সুবিধাবঞ্চিত মানুষের মুখে এক চিলতে হাসির আভা ছড়িয়ে যেন মানসিক তৃপ্তি পেয়েছেন বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল সাকিল আহমেদ’র পত্নী ডা. শাহনাজ সাকিল। তিনি বলেন, ‘একটু ভালোবাসা, সহানুভূতি ও আন্তরিকতাই পারে এসব মানুষের সুন্দর জীবন নিশ্চিত করতে, আলোর পথযাত্রী করতে। সামনের দিনগুলোতেও আমাদের এই প্রয়াস অব্যাহত থাকবে।’

বিজিবির মিডিয়া উইং সূত্র জানায়, সীমান্ত পরিবার কল্যাণ সমিতির তত্ত্বাবধানে শাখা ও উপ-শাখা সীপকস্ এর মাধ্যমে সারাদেশে প্রায় ৫ হাজার শীতার্ত দু:স্থ মানুষের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়েছে।

কী বলছেন সীপকস্’র প্রধান পৃষ্ঠপোষক
শীতবস্ত্র বিতরণ শেষে সীপকস্ এর প্রধান পৃষ্ঠপোষক ডা. শাহনাজ সাকিল বলেন, ‘সীমান্ত পরিবার কল্যাণ সমিতি বিজিবি পরিবারের নারী ও শিশুদের সার্বিক কল্যাণে নিবেদিত একটি জনকল্যাণমুখী সামাজিক প্রতিষ্ঠান। প্রতিষ্ঠানটি বিজিবি পরিবারের মহিলা সদস্যদেরকে বিভিন্ন কারিগরী ও কর্মমুখী (দর্জি, সুন্দরসূচি, ব্লক বাটিক, কম্পিউটার ও হস্তশিল্প) প্রশিক্ষণের মাধ্যমে মেধা ও প্রতিভার বিকাশ ঘটিয়ে তাদের আত্মনির্ভরশীল ও সামাজিকভাবে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে।’

তিনি বলেন, ‘বিজিবি সদস্যদের সন্তানদের মেধা বিকাশের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন সামাজিক শিষ্টাচার চর্চাসহ চিত্রাংকন, নৃত্য ও সংগীত বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করে তাদের মাঝে একতার বন্ধন চর্চা, পারস্পারিক শ্রদ্ধাবোধ, আত্মবিশ্বাস এবং মনোবল বৃদ্ধিতে সহায়তা করছে। পাশাপাশি সীমান্ত পরিবার কল্যাণ সমিতি বিজিবি কর্তৃক পরিচালিত দীপ্ত সীমান্ত বিশেষায়িত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অধ্যায়নরত বিজিবি সদস্যদের প্রতিবন্ধী সন্তানদেরকে শিক্ষা ভাতা ও আর্থিক অনুদান প্রদান করে থাকে।’

তিনি আরও বলেন, ‘এই প্রতিষ্ঠানটি আর্তমানবতার সেবায় বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণসহ নানামুখী জনকল্যাণমূলক কাজ করে থাকে। সাম্প্রতিক বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় বানভাসি মানুষদের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়ে সীমান্ত পরিবার কল্যাণ সমিতি সকলের প্রশংসা কুড়িয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় সীপকস্ এর উদ্যোগে ঢাকাসহ সারাদেশে অসহায় ও দুঃস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হচ্ছে। ভবিষ্যতেও এ ধারা অব্যাহত থাকবে বলেও জানান সীপকস্ এর প্রধান পৃষ্ঠপোষক ডা. শাহনাজ সাকিল।

কালের আলো/এসবি/এমএম

Print Friendly, PDF & Email