প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা উপদেষ্টার প্রতি কৃতজ্ঞতা, বাহিনী প্রধানদের সশ্রদ্ধ ধন্যবাদ ডিজি’র

প্রকাশিতঃ 11:28 pm | June 15, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

বুধবার (১৫ জুন) সকাল। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এসএসএফ’র ৩৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠান। করোনা মহামারির প্রকোপ কমে আসায় এবার সশরীরে এই প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। অনুষ্ঠান মঞ্চে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গেই ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তাবিষয়ক উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব:) তারিক আহমেদ সিদ্দিক, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব ড.আহমদ কায়কাউস ও এসএসএফ মহাপরিচালক (ডিজি) মেজর জেনারেল মজিবুর রহমান।

আরও পড়ুনঃ ‘গর্বিত বোধ’ করেন প্রধানমন্ত্রী, পেশাদারিত্বেই কঠিন সব চ্যালেঞ্জে উত্তীর্ণ এসএসএফ

অনুষ্ঠানে পাশাপাশি বসেছিলেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল ড.এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ, নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল এম শাহীন ইকবাল, বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চীফ মার্শাল শেখ আব্দুল হান্নান, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার (পিএসও) লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান, পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড.বেনজীর আহমেদ এবং বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর মহাপরিচালক (ডিজি) মেজর জেনারেল মিজানুর রহমান শামীম।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সীতাকুণ্ডের বিএম ডিপোসহ দেশে সাম্প্রতিক বিভিন্ন অগ্নিকাণ্ডের ঘটনাকে ‘রহস্যজনক’ হিসেবে বর্ণনা করে একটি মহল পদ্মা সেতুর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান বন্ধের ‘ষড়যন্ত্র’ করছে বলে অভিযোগ করেন। তিনি এ বিষয়ে তিন বাহিনীর প্রধান, পুলিশ এবং আইশৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত অনান্য বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে সর্তক থাকারও নির্দেশ প্রদান করেন।

আরও পড়ুনঃ প্রধানমন্ত্রীর উচ্ছ্বসিত প্রশংসায় এসএসএফ’র ডিজি

নিজের স্বাগত বক্তব্যে এসএসএফ’র মহাপরিচালক (ডিজি) মেজর জেনারেল মো.মজিবুর রহমান প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা বিষয়ক উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব:) তারিক আহমেদ সিদ্দিক- এর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ‘আমরা আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তাবিষয়ক উপদেষ্টাকে যিনি সব সময় পরামর্শ ও দিকনির্দেশনা দিয়ে আমাদের পাশে থাকেন।’

স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্সের (এসএসএফ) মহাপরিচালক সব বাহিনী প্রধান, গোয়েন্দা, সেবাদানকারী সংস্থা ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব, সিনিয়র সচিবসহ কর্মকর্তাদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ‘আমি অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিবর্গের নিরাপত্তার কাজে সহায়তাদানকারী বাংলাদেশ সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনী, বাংলাদেশ পুলিশ, আনসার ও ভিডিপিসহ সকল গোয়েন্দা ও সেবাদানকারী সংস্থাকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। সশ্রদ্ধচিত্তে ধন্যবাদ জানাচ্ছি সকল বাহিনী ও সংস্থা প্রধানদের, যারা নিরন্তর সহযোগিতা দিয়ে আমাদের কৃতজ্ঞতা পাশে আবদ্ধ করেছেন। আমরা বিশ্বাস করি আপনাদের আন্তরিক সহযোগিতা ছাড়া এই মহান কর্তব্য পালন কোনভাবেই সম্ভব নয়। আমি মহামান্য রাষ্ট্রপতির সচিবালয়ের আপন বিভাগ ও জনবিভাগের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের তাদের সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’

কালের আলো/বিএয/এমএম

Print Friendly, PDF & Email