মোমেন-ব্লিঙ্কেন বৈঠক: অংশীদারিত্ব আরও শক্তিশালী করতে আগ্রহী ওয়াশিংটন

প্রকাশিতঃ 11:26 am | April 05, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

বাংলাদেশ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অংশীদারিত্বকে আরও শক্তিশালী করতে সামনের দিনগুলোতে ঢাকার সঙ্গে একসঙ্গে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে ওয়াশিংটন। অন্যদিকে তলাবিহীন ঝুড়ির তকমা থেকে মুক্ত সম্ভবনাময় অর্থনীতির দেশ বাংলাদেশে আরও মার্কিন বিনিয়োগ চেয়েছে ঢাকা।

সোমবার (৪ এপ্রিল) ঢাকা-ওয়াশিংটনের কূটনৈতিক সম্পর্কের সুবর্ণজয়ন্তীর দিনে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেনের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

বৈঠকের শুরুতে বাংলাদেশের উন্নয়নের প্রশংসা করেন ব্লিঙ্কেন। তিনি বলেন, ভবিষ্যতেও দ্বিপাক্ষিক ও বহুপাক্ষিক সব ফোরামে ঢাকার পাশে থাকবে ওয়াশিংটন।

আলোচনায় র‌্যাবের ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের আহ্বান ছিল বাংলাদেশের। জবাবে প্রক্রিয়া যে জটিল সেটি আবারও জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেন, এজন্য একটি প্রক্রিয়া আছে। সেটা সম্পন্ন করা পরামর্শ দিয়েছেন তারা।

বাইডেন প্রশাসনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে প্রথম এ দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে আসে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন প্রসঙ্গ। জবাবে, দেশের নির্বাচন ব্যবস্থা যথাযথ আছে বলে দাবি কোরে, বিএনপিকে নির্বাচনমুখী করতে তাদের সহযোগিতা চান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

শ্রমিকদের জীবনমান উন্নত করার তাগিদ ছিল অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেনের। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর খুনিকে ফেরত চাইলে বিষয়টি দেখার আশ্বাস দিয়েছে ওয়াশিংটন।

এর আগে বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের কূটনৈতিক সম্পর্কের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে এক ভিডিও বার্তায় শুভেচ্ছা জানান মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন।

বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে সম্পর্কের টানাপোড়েনর মধ্যেই দুদেশের মন্ত্রী পর্যায়ের এ বৈঠক। আর এই বৈঠকেই দুদেশের সম্পর্কের ভবিষ্যৎ গতি-প্রকৃতি নির্ধারিত হবে এমনটাই মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

কালের আলো/এসবি/এমএম

Print Friendly, PDF & Email