ডিসি এনামুলের উদ্যোগ, দিনে দিনেই মিলছে জমির খতিয়ান

প্রকাশিতঃ 4:21 am | April 03, 2022

কালের আলো ডেস্ক :

অবিশ্বাস্য নয় মোটেও। একেবারেই বাস্তবতা। জনভোগান্তি বিদায়ে দিনে দিনেই মিলছে জমির খতিয়ান সেবা। ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ এনামুল হকের এমন প্রয়াসে বিভিন্ন উপজেলা থেকে আগত গ্রাহকরা একদিনেই কাঙ্ক্ষিত খতিয়ান পেয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। সপ্তাহ দুয়েক আগে ময়মনসিংহ সফরকালে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব কে এম আলী আজম দিনে দিনে খতিয়ান (সার্টিফাইড কপি) রেকর্ডরুম থেকে এই সেবা প্রদান কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন।

জানা যায়, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী সরকারি সেবা সহজীকরণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। ডিজিটাল বাংলাদেশের মূলমন্ত্র জনগণের দোড়গোড়ায় সেবা পৌঁছে দেওয়া। এছাড়া এসডিজি ২০৩০’র লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে এসব লক্ষ্যকে সামনে রেখে এই ব্যতিক্রমী উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। আবেদনের দিনেই খতিয়ান সেবা গ্রহিতাদের কাছে পৌঁছে দেওয়ার ফলে সাধারণের সময় ও খরচ দুটোই বেঁচেছে। নিশ্চিত হয়েছে হয়রানিমুক্ত সেবা। প্রশাসনের প্রতি সেবাগ্রহীতাদের বিশ্বাস ও আস্থাও বেড়েছে।

সূত্র জানায়, ময়মনসিংহ জেলায় ১৩টি উপজেলার ২২০১টি মৌজার সিএস, এসএ ও বিআরএস জরিপের ৯৭১৯টি রেকর্ড বহি, ২১১১৭৯৯টি খতিয়ান, ২৫৭৫৫৬টি মৌজা ম্যাপ সংরক্ষিত আছে। রেকর্ডরুমে ডিআরআর প্রকল্পের অধীনে ৮১৯৭৯২টি খতিয়ান আর্কাইভ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে জেলা সেটেলমেন্টের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইসমাত জাহান ইতু জানান, সেবাগ্রহীতাগণ সেটেলমেন্টের রেকর্ডরুম থেকে খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি, মৌজা নকশা সংগ্রহ করে থাকে। প্রতিদিন গড়ে প্রায় ১৮০-২০০টি খতিয়ান সরবরাহের আবেদন জমা পড়ে।

আরও জানা যায়, জেলা প্রশাসনের রেকর্ডরুমের প্রায় ৫ হাজার আবেদন অনিষ্পত্তি অবস্থায় থাকার ফলে খতিয়ান সরবরাহে দীর্ঘসূত্রিতা বেড়েই চলছিল। ভূমি সংক্রান্ত জটিলতায় জমি ক্রয় বিক্রয়ে বিভিন্ন মামলা পরিচালনায়, ব্যাংক ঋণ, নামজারি ইত্যাদি কাজে ভূমির খতিয়ান এতই গুরুত্বপূর্ণ যে, জনগণ তাৎক্ষণিকভাবে তা পাওয়ার জন্য মধ্যস্বত্ত্বভোগীদের দ্বারস্থ এবং হয়রানির স্বীকার হতো। কিন্তু ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ এনামুল হক এই সমস্যা সমাধানের কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করেছেন। জনভোগান্তি বিদায়ে দিনে দিনেই এখন মিলছে জমির খতিয়ান সেবা।

জানা যায়, দ্রুত খতিয়ান প্রদানের লক্ষে অনলাইনে ৫০ টাকা ফি প্রদান করে গ্রাহক প্রতিদিন সকাল ১০ টার মধ্যে প্রাপ্ত আবেদন (ই-পর্চা সিস্টেম) এবং সরাসরি প্রাপ্ত সংগ্রহপূর্বক কাজ শুরু করে। প্রাপ্ত আবেদনসমূহের ভিত্তিতে খতিয়ানে সার্টিফাইড কপি তৈরি করা এবং ওইদিন বিকাল ৪টা থেকে ৫টার মধ্যে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের ই-সেবা কেন্দ্র থেকে বিতরণ করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসক (ডিসি) মোহাম্মদ এনামুল হক জানান, ‘জেলা প্রশাসনের সেবাসমূহ সহজীকরণ ও জনগণের সেবা পেতে হয়রানি ও দুর্নীতিমুক্ত করার লক্ষ্যে পর্যায়ক্রমে আরও অন্যান্য সেবার ক্ষেত্রে অনুরূপ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।’

কালের আলো/বিএস/এমএম

Print Friendly, PDF & Email