শান্তিকালীন অবদানের জন্য ওএসপি পদক পেলেন সেনাপ্রধান জেনারেল শফিউদ্দিন

প্রকাশিতঃ 9:27 pm | November 21, 2021

বিশেষ সংবাদদাতা, কালের আলো :

২০২০-২১ সালে শান্তিকালীন অবদানের জন্য ওএসপি পদকে ভূষিত হয়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল ড.এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে আর্মি মাল্টিপারপাস কমপ্লেক্সে রোববার (২১ নভেম্বর) তাকে এই পদকে ভূষিত করা হয়।

আরও পড়ুন: সশস্ত্র বাহিনী দিবসে আবেগরুদ্ধ কন্ঠে উচ্চারণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক তাকে পদক পরিয়ে দেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী ভিটিসির মাধ্যমে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে যুক্ত ছিলেন।

আন্ত:বাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) জানিয়েছে, ৫ জন সেনা, ২ জন নৌ এবং ১ জন বিমান বাহিনী সদস্যদের ২০২০-২০২১ সালের শান্তিকালীন পদকে ভূষিত করা হয়। ৭ জন বীরশ্রেষ্ঠের নিকট আত্মীয়সহ প্রায় ৭৫ জন খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা ও তাঁদের উত্তরাধিকারীরা সংবর্ধনায় যোগ দেন।

প্রধানমন্ত্রী ভিটিসির মাধ্যমে সংযুক্ত থেকে আর্মি মাল্টিপারপাস কমপ্লেক্সে বীরশ্রেষ্ঠদের উত্তরাধিকারী এবং নির্ধারিত সংখ্যক খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা ও তাঁদের উত্তরাধিকারীদের সংবর্ধনা প্রদান করেন। এ সময় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী স্বশরীরে উপস্থিত থেকে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে তাদের হাতে সম্মানী চেক এবং উপহার তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ, নৌবাহিনী প্রধান এডমিরাল মোহাম্মদ শাহীন ইকবাল, বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল শেখ আব্দুল হান্নান ও সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার (পিএসও) লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার উজ জামানসহ উর্ধ্বতন সামরিক ও অসামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বীরশ্রেষ্ঠদের উত্তরাধিকারী এবং নির্ধারিত সংখ্যক খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা ও তাঁদের উত্তরাধিকারীদের সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠানে ভিটিসির মাধ্যমে সংযুক্ত থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘১৯৭১ সালে এদেশের মানুষ তাদের সমস্ত কিছু ঢেলে দিয়ে সমর্থন জানিয়েছে আওয়ামী লীগকে এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে।

কাজেই এ সকল মানুষের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় অর্জিত স্বাধীনতা, এটা কখনো ব্যর্থ হতে পারে না। কাজেই বাংলাদেশ উন্নত সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে উঠবে, বাংলাদেশকে বিশ্ব মর্যাদায় আমরা আজকে নিয়ে এসেছি, এই মর্যাদা ধরে রেখে বাংলাদেশ এগিয়ে যাবে।’

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন বর্তমান সরকার সে লক্ষ্য নিয়েই কাজ করছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘উন্নত সমৃদ্ধ সোনার বাংলা ইনশাল্লাহ আমরা গড়ে তুলব।’

একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে দখলদার পাকিস্তানি বাহিনীর বিরুদ্ধে সমন্বিত আক্রমণ শুরুর দিনটি প্রতি বছর সশস্ত্র বাহিনী দিবস হিসেবে উদযাপন করে বাংলাদেশ। সেই গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস স্মরণ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আজকে এই সশস্ত্র বাহিনী দিবসে আমি এইটুকু চাই যে আমাদের এই দেশের অগ্রযাত্রা যেন কোনো রকম ব্যাহত না হয়। বাংলাদেশ যেন সারাবিশ্বে মর্যাদা নিয়ে চলতে পারে।

প্রতিটি বাঙালি পৃথিবীর যেখানে যাবে, মাথা উঁচু করে গর্বভরে বলতে পারবে যে আমরা বিজয়ী জাতি, আমরা উন্নত জাতি। আমরা আমাদের নিজেদের দেশকে গড়ে তুলেছি, একটা সম্মানজনক অবস্থানে। সেটুকুই আমাদের আকাক্সক্ষা, সেটুকুই আমাদের কামনা।’

কালের আলো/জিকেএম/এমএএএমকে

Print Friendly, PDF & Email