সিটি করপোরেশনের কাজে অসহযোগিতা, আইন প্রয়োগের সিদ্ধান্ত ডিএনসিসি’র

প্রকাশিতঃ 7:14 pm | August 21, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে এইডিস মশার লার্ভা ধ্বংসে বাড়ি বাড়ি গিয়ে অভিযান চালানোর ক্ষেত্রে নগরবাসীর সহযোগিতা না পাওয়ায় দণ্ডবিধির আইন প্রয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিএনসিসি। ভবনে এডিস মশা নিধনে গিয়ে প্রবেশে বাধার সম্মুখীন হওয়ার অভিজ্ঞতা থেকে ১৮৬০ সালে প্রণীত দণ্ডবিধির আইন প্রয়োগের এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে ডিএনসিসি।

এ বিষয়ে ডিএনসিসি মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, একটি ভবনের নিচে এই ভাঙা পা নিয়ে আমাকে ৪৫ মিনিট দাঁড় করিয়ে রাখা হয়েছিল। আরেকটি ভবনে ইচ্ছে করে লিফটের ডিভাইস খুলে লিফট বন্ধ করে রাখা হয়েছিল। আরেকটি ভবনে ছাদের দরজার চাবি দেওয়া হচ্ছিল না। এতসব বাধা পেরিয়ে আমাদের কর্মকর্তাদের নিয়ে কাজ করতে হয়েছে। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি পেনাল কোড, ১৮৬০ প্রয়োগ করবো।

‘আইন সেই সুযোগ রেখেছে। পেনাল কোডের ২৬০, ২৭০, ১৮৪ ও ১৮৫ ধারাসহ বিভিন্ন ধারায় সরকারি কাজে সরকারি কর্মকর্তাদের বাধা দেওয়ার শাস্তির বিধান রাখা হয়েছে।’

এসময় স্থানীয় সরকার মন্ত্রী তাজুল ইসলাম বলেন, নাগরিকদের জরিমানা করা, শাস্তির আওতায় আনা সরকারের উদ্দেশ্য না। তার জন্য সরকার ক্ষমতায় আসে না। তবে দেশের মানুষের স্বার্থেই মাঝে মধ্যে কঠোর পদক্ষেপ নিতে হয়।

এক প্রশ্নের জবাবে স্থানীয় সরকার মন্ত্রী বলেন, কোনো ভবন মালিক বা সিটি করপোরেশন কে কার চেয়ে শক্তিশালী সেটা বিষয় না। বিষয় হচ্ছে রাষ্ট্র সবচেয়ে শক্তিশালী। সে তার ক্ষমতা প্রয়োগ করবে। যারা সিটি করপোরেশনের কাজে সহযোগিতা করছেন না তাদের বাধ্য করতে সরকার কঠোর আইনের প্রয়োগ করবে। তবে ভালো হবে সবাই নিজ নিজ জায়গা থেকে সচেতন হলে সরকারকে সাহায্য করলে।

সভায় ডিএনসিসির বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল হাই, সচিব রবীন্দ্র শ্রী বড়ুয়া, প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. মোমিনুর রহমান মামুনসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

কালের আলো/এনআর/এমএইচএ

Print Friendly, PDF & Email