হেলমেটধারীদের ফুলেল শুভেচ্ছা পুলিশের

প্রকাশিতঃ 6:49 pm | September 05, 2018

জেলা প্রতিবেদক, কালের আলো:

যারা হেলমেট পরে মটরসাইকেল চালাচ্ছেন তাদের ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন রংপুরের পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান। এর আগে রংপুরে চালু হয় ‘নো হেলমেট, নো পেট্রোল’ যা সারাদেশের মানুষ স্বাগত জানিয়েছিল।

বুধবার দুপুরে ‘আমাদের সড়ক আমরই করবো নিরাপদ’ স্লোগান ধারণ করে সিনিয়র পুলিশ কর্মকতাদের সঙ্গে নিয়ে সড়কে নামেন এসপি। এরপর ফুল দিয়ে স্বাগত জানান হেলমেটধারীদের। এতে সাড়াও পড়েছে ব্যাপক। এরআগে রংপুরে পুলিশের পক্ষ থেকে শুরু হওয়া ‘নো হেলমেট নো পেট্রাল’ কর্মসূচি স্বাগত জানিয়েছে সাধারণ মানুষ। যা দেশব্যাপী সাড়া ফেলেছে।

পুলিশ জনায়, শতভাগ হেলমেট ব্যবহার এবং আইন মেনে চলতে নগরীর অলিগলি থেকে মহাসড়কের বিভিন্ন জায়গায় অবস্থান নিয়ে অভিযান এবং সচেতনতা বড়তে বিভিন্ন যানবাহনে স্টিকার লাগাচ্ছে পুলিশ। এই অভিযানকে স্বাগত জানান মোটরসাইকেল চালকরা।

দেশব্যাপী সাড়া জাগানো এই কর্মসূচি গত ২৭ অক্টোবর রংপুরে শুরু হয়। এখন পর্যন্ত সহস্রাধিক মোটরসাইকেল আটক এবং মামলা হয়েছে । সড়ক-মহাসড়কে বেড়েছে হলমেট পরিহিত চালকের সংখ্যা।

এসপি সুপার মিজানুর রহমান বলেন, নিরাপদ সড়ক বাস্তবায়ন করাই আমাদের চেষ্টা। আমরা সর্বত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি যাতে সড়কে দুর্ঘটনা একেবারেই কমে যায়।

তিনি বলেন, হেলমেট ছাড়া যেন পেট্রল না পান মোটরসাইকেল চালকরা সে কারণে পেট্রল ওনার্স এ্যাসোসিয়েশনের সাথে কথা বলি। তারা উদ্রাগটাকে স্বগত জানিয়ে হেলমেট ছাড়া পেট্রল দেয়া বন্ধ করে দেয়। অধিক সতর্ক হওয়ার জন্য প্রতিটি পেট্রেলপাম্পে পুলিশ সদস্য বসানো হয়েছে। তিনি বলেন, এরই মধ্যে অসংখ্য মোটরসাইকেল চালক এখন হেলমেট ব্যবহার করছেন।

রংপুর পেট্রল পাম্প মালিক ওনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি গোলাম সরোয়ার টিটু বলেন, সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকেই আমরা হেলমেট ছাড়া পেট্রল দিচ্ছি না। পুলিশের এই উদ্যোগ অনেকের উপকার হয়েছে। কারণ একটি দুর্ঘটনার জন্য একটি পরিবার পথে বসে যায়। আমর মনে করি রংপুর পুলিশের এই উদ্যোগের করণে অনেক দুর্ঘটনা কমে যাব।

কালের আলো/জেপ্র/এমএইচএ

Print Friendly, PDF & Email