দুই বছরপূর্তিতে বশেফমুবিপ্রবির উপাচার্যকে শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ফুলেল শুভেচ্ছা

প্রকাশিতঃ 10:07 am | November 20, 2020

বশেফমুবিপ্রবি সংবাদদাতা, কালের আলো:

বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (বশেফমুবিপ্রবি) যোগদানের দুই বছরপূর্তি উপলক্ষে উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়েছেন শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা।

স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) সকালে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এ শুভেচ্ছা জানানো হয়। এ সময় কেকও কাটা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের সভাপতি ড. এএইচএম মাহবুবুর রহমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সুশান্ত কুমার ভট্টাচার্য, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ড. মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন, ডেপুটি রেজিস্ট্রার জনাব মহিউদ্দিন মোল্লাসহ ছয়টি বিভাগের চেয়ারম্যানসহ শিক্ষকমণ্ডলী, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ধন্যবাদ জানিয়ে উপাচার্য বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর মায়ের নামে প্রতিষ্ঠিত ‘বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়’কে গড়ে তুলতে আমার ওপর দায়িত্ব দিয়েছেন। এটা আমার জন্য বেশ আনন্দ ও গৌরবের। আমরা এই বিশ্ববিদ্যালয়কে একটি গবেষণাভিত্তিক এবং আন্তর্জাতিকমানের উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রূপান্তরিত করতে চাই।

‘দায়িত্ব নেওয়ার দুইবছরের মধ্যে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের উল্লেখযোগ্য উন্নয়ন হয়েছে। আপনারা সকলে মিলে নিরলস পরিশ্রম করছেন বলেই এটা সম্ভব হয়েছে। আশা রাখি ভবিষ্যতেও আপনাদের এ আন্তরিকতা ও কর্তব্যনিষ্ঠা অব্যাহত থাকবে। আর এটা হলে অচিরেই শিক্ষা ও গবেষণার ক্ষেত্রে নবীন এ বিশ্ববিদ্যালয় বিশ্ব দরবারে সমাদৃত প্রতিষ্ঠানে পরিণত হবে।’

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূ-তত্ত্ব ও খনিবিদ্যা বিভাগের স্বনামধন্য অধ্যাপক অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুদ্দিন আহমেদ ২০১৮ সালের ১৯ নভেম্বর বশেফমুবিপ্রবির প্রতিষ্ঠাতা উপাচার্য হিসেবে যোগ দেন। তিনি যোগ দেওয়ার অল্প দিনের মাঝেই ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয় এবং নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সেমিস্টার সম্পন্ন হয়।

তাঁর দুরদর্শী চিন্তা ও অক্লান্ত পরিশ্রমের ফলে স্থানীয় ফিশারিজ কলেজকে অল্প সময়ের মাঝে বিশ্ববিদ্যালয়ে আত্তীকরণ করা সম্ভব হয়েছে।

কালের আলো/এমএএ

Print Friendly, PDF & Email