সাকিবের ছুটি মঞ্জুর, যাচ্ছেন না নিউজিল্যান্ড সফরে

প্রকাশিতঃ 4:09 pm | December 06, 2021

স্পোর্টস ডেস্ক, কালের আলোঃ

নিউজিল্যান্ড সফরের জন্য ১৮ সদস্যের দল ঘোষণা করেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। দল ঘোষণার ঘণ্টাখানেক পরই এই সিরিজ থেকে ছুটি চেয়ে বিসিবি’র কাছে চিঠি পাঠান সাকিব আল হাসান। অবশেষে বিসিবি প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন সাকিবের ছুটি মঞ্জুর করেছেন। অর্থাৎ নিউজিল্যান্ড সফরে পাওয়া যাচ্ছে না সাকিবকে।

সোমবার (৬ ডিসেম্বর) বিসিবি প্রেসিডেন্ট সংবাদ সম্মেলনে জানালেন, কেউ যদি ছুটি চায়, খেলতে না চায়, বিশ্রাম চায়, ব্রেক চায় আমাদের কোনো আপত্তি নেই।

সাকিবের ছুটি কি মঞ্জুর করা হয়েছে,? এমন প্রশ্নে বোর্ড সভাপতি বলেছেন, ‘অবশ্যই মঞ্জুর করা হয়েছে।’ এ নিয়ে তিনবারের মতো নিউজিল্যান্ড সফর মিস করছেন সাকিব। ২০১৯ সালে প্রথমবার চোটের কারণে সফরে যেতে পারেননি। চলতি বছর দ্বিতীয়বার একই সফর মিস করেন পারিবারিক কারণে। একই কারণে এবারও তার যাওয়া হচ্ছে না।

তিনি আরও বলেন, ‘যার বিশ্রাম দরকার, তাকে তো বিশ্রাম দিতেই হবে। গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড় হোক আর সাধারণ খেলোয়াড়। ওর (সাকিব) ব্যাপারটা ভিন্ন। ও তো আর ইনজুরিতে না। পারিবারিক কারণে সে ছুটি চেয়েছে।

এর আগে শনিবার বোর্ড সভাপতি সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, ছুটির ব্যাপারে সাকিবের কাছ থেকে আনুষ্ঠানিক কোনও আবেদন তারা পাননি। এই ঘোষণার একঘণ্টা পর সাকিবের নাম রেখেই নিউজিল্যান্ড সফরের জন্য ১৮ জনের দল ঘোষণা করে বিসিবি। এর আধঘণ্টা পর পারিবারিক কারণে নিউজিল্যান্ডে যেতে পারছেন না বলে সাকিব বিসিবি বরাবর আনুষ্ঠানিক চিঠি দেন। এমন ঘটনায় সমন্বয়হীনতাও স্পষ্ট হয়ে ফুটে উঠেছে।

যদিও বিসিবি সভাপতি এখানে ব্রিবতকর কিছু দেখছেন না, ‘না, না বিব্রতকর না। আনঅফিসিয়ালি আমরা জানতাম। ব্যাপারটা হচ্ছে এতদিন ধরে সবকিছু আনঅফিসিয়ালি হয়ে আসছে। যার কারণে অনেক কনফিউশনের সৃষ্টি হয়। এই কনফিউশন যাতে না হয়, এই কারণে বলা হচ্ছে তারা (ক্রিকেটার) যেন আনুষ্ঠানিকভাবে জানায়।’

জানুয়ারি থেকে জটিলতা এড়াতে আগেভাগেই ক্রিকেটারদের ছুটি নিতে হবে। এমনটাই জানালেন নাজমুল হাসান, ‘এটা তো আগে থেকেই বলে আসছি। কেউ যদি ছুটি চায়, খেলতে না চায়, বিশ্রাম চায়, ব্রেক চায়- আমাদের কোনও আপত্তি নেই। কিন্তু সেটি আনুষ্ঠানিকভাবে হতে হবে। জিনিসটা হচ্ছে আমরা এ বিষয়টি আগাম জানতে চাই। হঠাৎ করে আসলে আমাদের জন্য কঠিন হয়ে যায়। আগামী জানুয়ারি থেকে আমরা যে জিনিসটা করছি সেটা হচ্ছে, কারও যদি রেস্ট-ব্রেক লাগে, আমাদের আগে থেকে জানাতে হবে। তাহলে আমরা অন্য খেলোয়াড়কে রেডি করতে পারবো।’

হ্যামস্ট্রিংয়ের চোট পাওয়ায় সাকিব টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মাঝপথেই ছিটকে গিয়েছিলেন। তার চোটের ধরন ছিল গ্রেড-১। ফলে দুবাই থেকে সোজা চলে যান যুক্তরাষ্ট্রে স্ত্রী-সন্তানদের কাছে। সেখানে চলে তার পুনর্বাসন প্রক্রিয়া। কয়েক সপ্তাহ বিশ্রাম নিয়ে চট্টগ্রাম টেস্টের আগে দেশে ফিরে আসেন। পাকিস্তানের বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্ট খেলতে না পারলেও খেলছেন ঢাকা টেস্টে।

৯ ডিসেম্বর সকালে নিউজিল্যান্ড সফরে যাবে বাংলাদেশ দল। সফরে মুমিনুল হকরা দুটি টেস্ট খেলবে। চলতি বছর ফেব্রুয়ারি-মার্চে সীমিত ওভারের ম্যাচ খেলতেও বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ড গিয়েছিল। সেবার ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হয়েছিল। এবার সাত দিনের কোয়ারেন্টিন মানতে হবে।

কালের আলো/টিআরকে/এসআইএল

Print Friendly, PDF & Email