রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে জেনারেল আজিজ-উয়েই ফেং’র বৈঠক, চীনের ‘গুড উইল’ কামনা

প্রকাশিতঃ 9:08 pm | November 07, 2019

বিশেষ সংবাদদাতা, কালের আলো :

মিয়ানমার থেকে জোরপূর্বক নির্বাসিত ১১ লাখ রোহিঙ্গা সংকটের সম্ভাব্য সমাধান খুঁজছে বাংলাদেশ। প্রধানমন্ত্রীর চীন সফরেও রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে সম্মত হয়েছিল ঢাকা ও বেইজিং। বাংলাদেশের পরিবেশ ও নিরাপত্তার জন্য আশ্রিত রোহিঙ্গারা বড় রকমের মাথাব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

আরও পড়ুন: সেনাপ্রধানের চীন সফর, বাংলাদেশ-চীন সেনাবাহিনীর সম্পর্ক নতুন উচ্চতায়

এমন অবস্থায় চীন সফরত বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী উয়েই ফেং’র সঙ্গে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেছেন। আলোচনায় অকাট্য যুক্তি উপস্থাপন করে চীনের ‘গুড উইল’ কামনা করেছেন সেনাপ্রধান।

রোহিঙ্গারা যাতে নিজেদের দেশে ফিরে যেতে পারে এজন্য রাজনৈতিক উদ্যোগের পাশাপাশি সামরিক নেতৃবৃন্দকেও এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। বুধবার (০৬ নভেম্বর) সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে গুরুত্বপূর্ণ এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। নানামুখী সমীকরণে খুবই বন্ধুত্বপূর্ণ এ আলোচনায় দ্বিপাক্ষিক সামরিক সহযোগিতামূলক বিভিন্ন বিষয়াদিও উঠে আসে।

আন্ত:বাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) জানিয়েছে, চীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী উয়েই ফেং’র সঙ্গে সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদের সাক্ষাতে বাংলাদেশ ও চীনের সেনাবাহিনীর মধ্যে বিদ্যমান সুসম্পর্কের উন্নয়নের বিষয়েও আলোচনা হয়।

একই সঙ্গে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যূত রোহিঙ্গা ইস্যু নিয়েও তাদের মাঝে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। এ সময় সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ বলেছেন, ‘রোহিঙ্গারা বিভিন্ন ধরনের অপরাধ প্রবণতা ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িয়ে যাচ্ছে।

আরও পড়ুনঃ সেনাপ্রধানের চীন সফর, রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে এবার সামরিক কূটনীতিতে বাংলাদেশ

যা বাংলাদেশ-মিয়ানমার তথা দক্ষিণ এশিয়ার আঞ্চলিক শান্তি ও নিরাপত্তার জন্য হুমকিস্বরূপ।

বাংলাদেশ এবং মিয়ানমার উভয় রাষ্ট্রের জন্যই চীন অত্যন্ত বন্ধুপ্রতীম রাষ্ট্র উল্লেখ করে বৈঠকে দৃঢ়তার সঙ্গে জেনারেল আজিজ আহমেদ বলেন, চীন তাদের বন্ধুপ্রতীম মায়ানমার সেনা নায়কদের প্রতি রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে কার্যকর ভূমিকা রাখবে বলে আমরা প্রত্যাশা করি।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এছাড়া বৈঠকে কাউন্টার টেরোরিজম, সাইবার সিকিউরিটিসহ নতুন চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় উন্নত প্রশিক্ষন সহায়তা, দুই দেশের বিশেষ বাহিনীর সদস্যদের যৌথ অনুশীলন, চিকিৎসা ক্ষেত্রে সেনাবাহিনীর চিকিৎসকদের বিশেষায়িত প্রশিক্ষণ, সেনা সদস্যদের বিনা খরচে উন্নত চিকিৎসা সেবা প্রদানের বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা হয়।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার (০৪ নভেম্বর) চারদিনের সরকারি সফরে চীন যান সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ। আগামী শনিবার (০৯ নভেম্বর) তাঁর দেশে প্রত্যাবর্তনের কথা রয়েছে।

কালের আলো/এসআর/এমএএএমকে

Print Friendly, PDF & Email