‘জাফর ইকবাল ইসলামের শত্রু, তাই হত্যার চেষ্টা’

প্রকাশিতঃ 11:30 am | March 04, 2018

কালের আলো রিপোর্ট:

জনপ্রিয় লেখক শিক্ষাবিদ অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবালকে ইসলামের শত্রু মনে করেন হামলাকারী। তাই তাকে হত্যার চেষ্টা করেছেন মাদ্রাসা পড়ুয়া ওই যুবক।

হামলাকারী যুবক ফয়জুর র‌্যাবের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এসব কথা জানিয়ে বলেছেন, “উনি নিজে নাস্তিক হতে পারেন, কিন্তু সবাইকে নাস্তিক বানানোর জন্য তিনি প্রচার ও প্রসার করে বেড়ান। এই অধিকার তার নেই।’

ফয়জুর রহমান (২৪) সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার কালিয়াপন গ্রামের বাসিন্দা। পরিবারের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসের পাশে কুমারগাঁওয়ের শেখপাড়ায় থাকেন তিনি। তিনি মাদ্রাসায় পড়ালেখা করেছেন। মঈন কম্পিউটার নামে একটি দোকানে কাজ করেন তিনি।

শনিবার মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলা চালানো হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিকস ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের একটি উৎসবে অংশ নিয়ে অন্যদের সঙ্গে মুক্তমঞ্চে বসে ছিলেন জাফর ইকবাল। তার পেছনেই দাড়িয়ে ছিলেন ফয়জুর। হঠাৎ পেছন থেকে জাফর ইকবালের মাথায় ছুরিকাঘাত করেন ওই যুবক।

শিক্ষার্থীরা সঙ্গে সঙ্গেই হামলাকারীকে ধরে ফেলে। পরে তাকে গণপিটুনি দিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে তুলে দেয়া হয়। রাতে তাকে র‍্যাব হেফাজতে নেয়া হয়। হামলাকারী এখন সিলেট সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

শনিবার সকালে র‌্যাব-৯-এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আলী হায়দার আজাদ হামলাকারীর বরাত দিয়ে বলেন, “প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের সময় ভূতের বাচ্চা সোলায়মান নামক একটি উপন্যাসের কথা উল্লেখ করেন হামলাকারী। তিনি বলেন, এই উপন্যাসের মাধ্যমে জাফর ইকবাল নবীকে নিয়ে ব্যঙ্গ করেছেন। তাই আমি হামলা করেছি।”

জিজ্ঞাসাবাদে আরো কিছু জানা গেছে কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে র‍্যাব অধিনায়ক বলেন, “সে সুস্থ হলে আমরা এই ব্যাপারে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করব।”

 

কালের আলো/এমকে

Print Friendly, PDF & Email