পিতৃভূমি টুঙ্গিপাড়ায় নতুন সেনাপ্রধান, বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে বিনম্র শ্রদ্ধা

প্রকাশিতঃ 7:27 pm | June 25, 2024

বিশেষ সংবাদদাতা, কালের আলো:

তাঁর নামের ওপর দুলছে বাঙালির বিজয়ের পতাকা। দুলতে থাকবে অবিরাম; তাঁর নামের প্রতিশব্দই যেখানে স্বাধীনতা; সেই অবিসংবাদিত নেতা, স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাঘিয়ার-মধুমতী নদীতীরে সবুজে ঘেরা টুঙ্গিপাড়ায় মাটির শীতল বিছানায় আচ্ছন্ন গভীর ঘুমে। বাঙালির প্রাণের তীর্থ গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় বাঙালির আলোকবর্তিকাকে তাঁর সমাধিতে মঙ্গলবার (২৫ জুন) দুপুরে বিনম্র শ্রদ্ধা জানিয়েছেন নবনিযুক্ত সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান। এ সময় সেনাবাহিনীর একটি সুসজ্জিত চৌকস দল গার্ড অব অনার প্রদান করে। সামরিক কায়দায় জানানো হয় সশস্ত্র সালাম, বেজে ওঠে বিউগল।

বাঙালির জাতিসত্তা পরিচয়ের চূড়ান্ত রূপকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, তাঁর পরিবারের শহীদ সদস্য ও মহান মুক্তিযুদ্ধে আত্মোৎসর্গকারী ৩০ লাখ শহীদের রুহের মাগফেরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করেন তিনি। বেদীর পাশে কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন নবনিযুক্ত সেনাপ্রধান। বঙ্গবন্ধুর সমাধি সৌধ কমপ্লেক্স এলাকা ঘুরে নান্দনিক প্রাকৃতিক সৌন্দর্যও উপভোগ করেন।

১০৪ বছর আগে হিজল-বরুণ ছায়ায়, বাইগার নদীর তীরে ছোট্ট টুঙ্গিপাড়ায় জন্ম নেওয়া হাজার বছরের পরাধীনতার শৃঙ্খলমুক্তির মহানায়ক বঙ্গবন্ধু স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার পর ১৯৭৫’র ১৫ আগস্ট ঘাতকের তপ্ত বুলেটে বুকে রক্তজবা এঁকে ফিরে আসেন নিজ জন্মভিটায়, টুঙ্গিপাড়ায়। নতুন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান হৃদয়গ্রোথিত আবেগে শ্রদ্ধা জানান বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে সেনাপ্রধান বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধে রক্ষিত পরিদর্শন বইয়ে স্বাক্ষর করেন। এ সময় সেনাপ্রধানের জীবনসঙ্গী সারাহনাজ কমলিকা জামান উপস্থিত ছিলেন।

সেনাপ্রধানের টুঙ্গিপাড়া সফরে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অ্যাডজুটেন্ট জেনারেল (এজি) মেজর জেনারেল মুহাম্মদ যুবায়ের সালেহীন, ৫৫ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি ও যশোরের এরিয়া কমান্ডার মেজর জেনারেল মোহাম্মদ মাহবুবুর রশীদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চাচা শেখ কবির হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. গোলাম কবির, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. খায়রুল আলম, মিল্ক ভিটার চেয়ারম্যান শেখ নাদির হোসেন লিপু, টু্ঙ্গিপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান মো. বাবুল শেখসহ সেনাসদরের ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তা ও যশোর এরিয়ায় কর্মরত কর্মকর্তা, সেনা বাহিনী প্রধানের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

কালের আলো/এমএএএমকে

Print Friendly, PDF & Email