জাজিরায় সড়ক দুর্ঘটনায় অ্যাম্বুলেন্সের ৬ যাত্রী নিহত

প্রকাশিতঃ 10:39 am | January 17, 2023

কালের আলো প্রতিবেদক:

শরীয়তপুরের জাজিরার নাওডোবা এলাকায় ট্রাকের পেছনে ধাক্কা দেওয়া অ্যাম্বুলেন্সে থাকা ছয় জন নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) ভোরে পদ্মা সেতুর দক্ষিণ থানা সংলগ্ন এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনায় অ্যাম্বুলেন্সে থাকা রোগী ও তার স্বজন এবং চালক-হেলপার সবাই প্রাণ হারিয়েছেন।

নিহতরা হলেন- রোগী জাহানারা বেগম (৫৫), স্বাস্থ্যকর্মী ফজলে রাব্বি (২৮), রোগীর মেয়ে লুৎফুন নাহার লিমা (৩০), গাড়ি চালক জিলানি (২৮), গাড়ির হেলপার রবিউল ইসলাম (২৬) ও সাংবাদিক মাসুদ রানা (৩০)। এর মধ্যে রবিউল ইসলামের বাড়ি ঢাকার খিলগাঁওয়ের তালতলা এলাকায়। এ ছাড়া মাসুদ রানা দৈনিক নবচেতনা পত্রিকার বরিশাল ব্যুরো চিফ।

পুলিশ জানায়, অ্যাম্বুলেন্সটি বরিশাল থেকে রোগী ও স্বজনদের নিয়ে ঢাকার দিকে যাচ্ছিল। পথে জাজিরায় পদ্মা সেতু টোলপ্লাজার কাছে গতিনিরোধক পার হতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারায়। এ সময় অ্যাম্বুলেন্সটি একটি ট্রাকের পেছনে ঢুকে দুমড়ে-মুচড়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই অ্যাম্বুলেন্সের ছয় যাত্রী নিহত হন।

পুলিশের ধারণা, অ্যাম্বুলেন্সের চালক ঘুমিয়ে যাওয়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পর ট্রাকচালক পালিয়েছেন। তাকে আটকের জন্য পুলিশ কাজ করছে।

জাজিরা ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের মাস্টার এনামুল হক সুমন বলেন, ‘আমরা খবর পাই, পদ্মা সেতু এলাকায় ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনা ঘটেছে। সঙ্গে সঙ্গে সেখানে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার গাড়িগুলো সেখান থেকে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাই এবং লাশগুলো উদ্ধার করে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসি।’

হাইওয়ে ফরিদপুর সার্কেল এএসপি মারুফ হাসান বলেন, ‘আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ফায়ার সার্ভিস ও দক্ষিণ থানা পুলিশকে সঙ্গে নিয়ে নিহতদের লাশ উদ্ধার করে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে সুরতহাল করেছি। নিহতদের স্বজনদের খবর দেওয়া হয়েছে। এখান থেকেই স্বজনদের হাতে লাশ তুলে দেওয়া হবে।’

কালের আলো/এসবিএমএম

Print Friendly, PDF & Email