জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত, মেট্রোরেলে উঠতে দীর্ঘ সারি

প্রকাশিতঃ 9:17 am | December 29, 2022

নিজস্ব প্রতিবদেক, কালের আলো:

এক দশকের অপেক্ষার পর মেট্রোরেলের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার (২৮ ডিসেম্বর) উত্তরা থেকে আগারগাঁও অংশের উদ্বোধন হলেও আজ বৃহস্পতিবার (২৯ ডিসেম্বর) থেকে বহুল প্রতিক্ষীত এই মেট্রোরেলের দরজা খুলেছে সাধারণ মানুষের জন্য।

মেট্রোতে উঠতে ইতোমধ্যে মেট্রোরেলে চড়তে স্টেশনে ভিড় করেছেন যাত্রীরা। বৃহস্পতিবার (২৯ ডিসেম্বর) আগারগাঁও স্টেশনে গিয়ে দেখা যায়, মেট্রোরেলে চড়তে ভোর থেকেই লাইনে দাঁড়িয়েছেন যাত্রীরা। কেউ অফিসগামী, কেউবা এসেছেন পরিবারসহ। অনেকেরই লক্ষ্য শুধু মেট্রোরেলে ঘোরা।

কথা হয় ইকবাল হোসেন নামের এক যাত্রীর সঙ্গে। মেট্রোরেলে চড়ে উত্তরা যাবেন তিনি। ইকবাল বলেন, আজ প্রথম মেট্রোরেল চালু হবে। তাতে চড়ার জন্যই আসা। সবসময় বিদেশে দেখে এসেছি। আজ নিজের দেশের মেট্রোরেলে চড়ব।

সরকারি চাকরিজীবী মুজাহিদুল ইসলাম বলেন, মেট্রোরেলে ঘোরার জন্যই আজ এসেছি। এখান থেকে উত্তরা যাব, আবার ব্যাক করব। খুবই ভালো লাগছে যে দেশে মেট্রোরেল চালু হয়ে গেছে।

মেট্রোরেল পরিচালনাকারী কর্তৃপক্ষ ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এমএএন ছিদ্দিক জানিয়েছেন, পূর্বনির্ধারিত সময় অনুযায়ী বৃহস্পতিবার সকাল আটটায় মেট্রোরেলের দরজা খুলবে সাধারণ যাত্রীদের জন্য।

সাধারণ যাত্রীদের জ্ঞাতার্থে কর্তৃপক্ষ জানায়, মেট্রোরেলে কোনও ধরনের পোষা প্রাণী বহন করা যাবে না। বিপজ্জনক বস্তু বহন করা যাবে না। মেট্রোর প্ল্যাটফর্মে পানের পিক বা থু থু ফেলা যাবে না। প্ল্যাটফর্ম ও মেট্রো ট্রেনে খাওয়া দাওয়াও নিষেধ। প্ল্যাটফর্মের কোথাও কোনও ময়লা ফেলা যাবে না।

মেট্রোরেলে ওঠা-নামার সময় মোবাইল ফোন ব্যবহার করা যাবে না। কোচের দরজায় হেলান দিয়ে দাঁড়ানো যাবে না। মোবাইল ফোনের স্পিকার অন করে রাখা যাবে না এছাড়া নিচু স্বরে কথা বলতে হবে।

ঢাকা ম্যাস র‌্যাপিড ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এমএএন ছিদ্দিক বলেন, ট্রেনের উঠার আগে স্টেশন থেকে একক যাত্রার কার্ড ও র‌্যাপিড পাস কার্ড নেওয়া যাবে। একক যাত্রার কার্ড মাত্র ৩০ সেকেন্ডে টিকিট কাউন্টার ও টিকিট বিক্রয় মেশিন থেকে নেওয়া যাবে। আর র‌্যাপিড পাস কার্ড নেওয়ার জন্য ফরম ওয়েবসাইট ও স্টেশনে পাওয়া যাবে।

কালের আলো/এসবি/এনএল

Print Friendly, PDF & Email