উন্নয়নের প্রতিটি সেক্টরে নারীদের সম্পৃক্ত করতে হবে : স্পিকার

প্রকাশিতঃ 10:09 pm | November 23, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, কোভিড পরবর্তী সময়ে জাতীয় অর্থনীতির স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে উন্নয়নের প্রতিটি সেক্টরে নারীদের সম্পৃক্ত করতে হবে। নারী উদ্যোক্তাদের প্রতি সহযোগিতার হাত প্রশস্ত করতে হবে। তারা নূন্যতম আর্থিক সহায়তা পেলে তাদের ক্ষুদ্র শিল্পকে মাঝারি ও বৃহৎ শিল্পে পরিণত করতে পারবে।

বুধবার (২৩ নভেম্বর) রাজধানীর রেডিসন হোটেলে অনুষ্ঠিত ‘ইন্টারন্যাশনাল উইমেন এন্টারপ্রেনারস সামিট-২০২২’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শিরীন শারমিন এসব কথা বলেন।

স্পিকার বলেন, নারী উদ্যোক্তাদের জন্য নীতি সহায়তার পাশাপাশি ঋণপ্রাপ্তি সহজ করা হয়েছে। এটি আরও সহজীকরণ করার প্রয়োজন। তবে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে নারী উদ্যোক্তাদের জন্য ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত সহজ শর্তের (সুদবিহীন) ঋণ সুবিধা দেওয়া হচ্ছে। কিন্তু অনেকেই এসব তথ্য জানেন না। ফলে এ তহবিলের অর্থ খুব বেশি ব্যয়ও হয় না। এজন্য সবার মাঝে তথ্য ছড়িয়ে দিতে হবে

তিনি বলেন, নারী উন্নয়নে এখনো পাঁচ ধরনের প্রধান বাধা আছে। এগুলো হলো- প্রশিক্ষণ, উন্নত শিক্ষা, সম্পদ প্রাপ্তি, কাঁচামালের সহজলভ্যতা এবং বাজার সুবিধা নিশ্চিত করা। এসব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করা গেলে এ দেশের নারী উদ্যোক্তারা আরও অনেক বেশি এগিয়ে যেতে পারবেন।

দুই দিনব্যাপী যৌথভাবে এ সম্মেলনের আয়োজন করেছে বাংলাদেশ-ইন্ডিয়া বিজনেস কাউন্সিল (বিআইবিসি) এবং বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট ডেভেলপমেন্ট অথরিটি (বিডা)। প্রথম দিনে বিভিন্ন বিষয়ের ওপর একাধিক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্পিকার বলেন, এ দেশের নারী উদ্যোক্তাদের এখনো অনেক সমস্যা আছে। কিন্তু সেগুলো সমাধানের ক্ষেত্রে এরকম একটি প্ল্যাটফর্ম গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। এ দেশের নারী উদ্যোক্তারা দারিদ্র্য নিরসন, বৈষম্য হ্রাস এবং কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে ব্যাপক অবদান রাখছেন। একটি অন্যতম বিষয় হলো নারী উদ্যোক্তারা কখনো ঋণ খেলাপি হন না। তাহলে তাদের জন্য সহজেই ঋণপ্রান্তি নিশ্চিত করতে আরও বেশি জোর দেওয়া দরকার। এক্ষেত্রে সরকারি বিভিন্ন ঋণের পাশাপাশি ব্যাংক ঋণপ্রাপ্তি আরও সহজ করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম নারী উদ্যোক্তাদের জন্য অনেক বেশি সুযোগ তৈরি করেছে। এটিকে কার্যকরভাবে কাজে লাগাতে হবে। পাশাপাশি আধুনিক প্রযুক্তি গ্রহণ এবং হস্তান্তরের বিষয়টিতে গুরুত্ব দিতে হবে।

স্পিকার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। সেই সঙ্গে এগিয়ে যাচ্ছেন নারী উদ্যোক্তারাও। তারা শত বাধা পেরিয়ে দেশের সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছেন। করোনা মহামারির সময় ক্ষুদ্র ব্যবসা এবং নারী উদ্যোক্তারা অনেক বেশি ক্ষতির শিকার হয়েছেন। ধীরে ধীরে তারা সেটি কাটিয়ে উঠে এগিয়ে যাচ্ছেন সামনে দিকে। নতুন নতুন ব্যবসার পথ তৈরি করছেন। এটি আমাদের জন্য অনেক বেশি পাওয়া।

বিআইবিসির প্রেসিডেন্ট মানতাসা আহমেদের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস, বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান লোকমান হোসেন মিয়া, এফবিসিসিআই সভাপতি জসিম উদ্দিন এবং উইমেন’স ইন্ডিয়া চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (ডব্লিউআইসিসিআই) প্রেসিডেন্ট ড. হারবিন অরোরা রায়।

বক্তব্য দেন- বিডার নির্বাহী সদস্য মহসিনা ইয়াসমীন। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সামিট গ্রুপের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আজিজ খান।

কালের আলো/ডিএস/এমএম

Print Friendly, PDF & Email