নেপালকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ 7:10 pm | September 19, 2022

স্পোর্টস ডেস্ক, কালের আলো:

ইতিহাস গড়ার হাতছানি নিয়েই মাঠে নেমেছিল বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষ নেপাল। যাদের বিপক্ষে জয় অধরা হয়েই আছে। শঙ্কা তো ছিলই। কিন্তু যে দিনটা বাংলাদেশের, যে দিনটা কৃষ্ণা-শামসুন্নাহারের, সেদিন তো বাংলাদেশের লাল-সবুজ পতাকা উড়বেই। কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামে ইতিহাস গড়ল বাংলাদেশ।

সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) ফাইনালে নেপালকে ৩-১ গোলে হারিয়ে বাংলাদেশ জিতল নারী সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ। অর্জন করল দক্ষিণ এশিয়ার ফুটবল শ্রেষ্ঠত্ব।

নেপালের কাঠমান্ডুর দশরথ রঙ্গশালা ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে সোমবার বিকেলে ম্যাচের প্রথম মিনিটে লিড নেয়ার সু্যোগ ছিল বাংলাদেশের। মারিয়া মান্ডার দূরপাল্লার শট নেপালের গোলকিপার রুখে দিলেও সুযোগ ছিল সিরাত জাহান স্বপ্নার। তবে শেষ পর্যন্ত লক্ষ্যভেদ করতে ব্যর্থ হন তিনি।

স্বপ্না সেমিফাইনালে ব্যাথা পেয়েছিলেন। আঘাত নিয়েই ফাইনাল খেলতে নামেন। তবে, শুরুতে আবার মাঠে পড়ে গিয়ে ব্যাথা পেলে খেলা শুরুর ১০ মিনিটের মাথায় কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন মাঠ থেকে তাকে তুলে নেন। বদলি হিসেবে নামানো হয় শামসুন্নাহার জুনিয়রকে।

২০০৮ সাল থেকে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দলের সঙ্গে থাকা কোচ ছোটনের সিদ্ধান্ত যে সঠিক ছিল, তা প্রমান করতে বেশি সময় নেননি শামসুন্নাহার। ১৩তম মিনিটে তার করা গোলে লিড পায় লাল-সবুজ জার্সিধারিরা।

মাঠে উপস্থিত ১৫ হাজার দর্শককে স্তব্ধ করে দিয়ে নেপালের ৩জন ডিফেন্ডারকে বোকা বানিয়ে গোলের দেখা পেয়ে যান তিনি। ৩৫তম মিনিটে ফ্রি কিক পায় নেপাল। তবে গোলকিপারের দক্ষতায় রক্ষা পায় বাংলাশের মেয়েরা।

বিরতির আগে ব্যবধান বাড়ায় ছোটনের শিষ্যরা। ৪০তম মিনিটে সাবিনা খাতুনের বাড়িয়ে দেয়া বলে কৃষ্ণা রানি সরকারের গোলে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় বাংলাদেশ।

দ্বিতীয়ার্ধের খেলা শুরু হলে বেশ কয়েকবার আক্রমণে যায় নেপাল। বেশ কয়েকবার সু্যোগ পেলেও কাজে লাগাতে পারেনি দলটি।

ম্যাচের ৫৬তম সানজিদাকে মাঠ তুলে মাঠে নামানো হয় ঋতুপর্নাকে। টুর্নামেন্টে দুই ম্যাচে বদলি নেমে দুটোতেই গোলের দেখা পেয়েছিলেন তিনি।

ম্যাচের ৬১তম মিনিটে ঋতুপর্নার কাছ থেকে বল পান সামসুর নাহার। তবে নেপালের গোলকিপার আনজিলা সুম্বা রক্ষা করেন তাদের।

ম্যাচের ৭০তম মিনিটে ব্যবধান কমায় নেপাল। ফরোয়ার্ড আনিতা বাসিতের গোলে স্কোর লাইনকে ৩-১ গোলে পরিণত করেন তিনি। এর ফলে কিছুটা চাপে পরে অধিনায়ক সাবিনা খাতুনের দল।

ব্যবধান কমিয়ে নেপালের মেয়েরা চড়াও হয় বাংলাদেশের ওপর। এর পর বেশ কয়েকবার আক্রমণে যায় নেপলের মেয়েরা।

ম্যাচে ফেরা নেপালকে বেশি এগিয়ে থাকতে দেননি বাংলাদেশের মেয়েরা। কৃষ্ণার জয়সূচক গোলে শিরোপার দেখা পেয়ে যায় আত্মবিশ্বাসী ছোটনের শিষ্যরা।

কালের আলো/ডিএস/এমএম

Print Friendly, PDF & Email