সার নিয়ে অহেতুক অস্থিরতা তৈরি করলে কেউই রেহাই পাবেনা : খাদ্যমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ 8:30 pm | August 28, 2022

কালের আলো প্রতিবেদক:

দেশে সবধরনের সারের পর্যাপ্ত মজুত আছে বলে জানিয়ে খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, একটি গোষ্ঠী প্যানিক (আতংক) সৃষ্টি করছে যে সারের অভাব। ফলে কিছু অসাধু ডিলার সুযোগ নিচ্ছেন। অহেতুক অস্থিরতা তৈরি করলে কেউই রেহাই পাবেননা।

তিনি বলেন, যিনি যে এলাকায় ডিলারশিপ নিয়েছেন তাকে সে এলাকায় সার বিক্রি নিশ্চিত করতে হবে। প্রতিদিন কতটুকু বিক্রি হলো, কতটুকু অবশিষ্ট থাকলো তা নিয়মিতভাবে রেজিস্টারে লিপিবদ্ধ করে কর্তৃপক্ষকে জানাতে হবে।

রোববার (২৮ আগস্ট) বিকেলে সদর উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে ওএমএস ও খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির ডিলার এবং বিএডিসি ও বিসিআইসি সার ডিলারদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ‌আগামী ১ সেপ্টেম্বর থেকে জেলা, উপজেলা ও পৌর এলাকায় খাদ্যবান্ধব ও ওএমএসের চাল বিতরণ কার্যক্রম শুরু হবে। এ সময় চাল বিতরণে যেন কোনো অনিয়ম না হয় তা নিশ্চিত করতে প্রশাসনের কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার।

তিনি বলেন, ‌‘বিরূপ আবহাওয়া হলে আমনের উৎপাদন কম হতে পারে। সেজন্য আমরা সতর্কতা হিসেবে বিদেশ থেকে চাল আমদানি করছি। এরই মধ্যে বেসরকারি চাল আমদানির ক্ষেত্রে ১০ শতাংশ রেগুলেটরি ট্যাক্স কমিয়েছি। আজই হয়তো গেজেট জারি হবে।’

এ সময় জেলা প্রশাসক খালিদ মেহেদি হাসানের সভাপতিত্বে পুলিশ সুপার রাশিদুল হক, রাজশাহী আঞ্চলিক খাদ্য কর্মকর্তা ফারুখ হোসেন পাটোয়ারী, নওগাঁ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আবু হাসান, জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক আলমগীর কবির ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম বক্তব্য রাখেন।

জেলায় এক লাখ ১৯ হাজার ভোক্তা খাদ্যবান্ধব ও ওএমএস কর্মসূচির আওতায় স্বল্প মূল্যে চাল কেনার সুবিধা পাবেন বলে সভায় জানানো হয়।

কালের আলো/ডিএস/এমএম

Print Friendly, PDF & Email