মহানগর ছাত্রলীগ আহ্বায়ক অনিকে নিয়ে ষড়যন্ত্রের নেপথ্য রহস্য?

প্রকাশিতঃ 9:59 pm | July 23, 2022

অনিক খান, ময়মনসিংহ:

ত্যাগ আর লড়াই সংগ্রাম। ময়মনসিংহ মহানগর ছাত্রলীগের আহ্বায়ক নওশেল আহমেদ অনি’র বেলায় প্রযোজ্য এই শব্দগুচ্ছ। মহান জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে বিনির্মাণ করেছেন নিজেকে। দুরন্ত সেই শৈশবেই।

প্রতিনিয়ত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেশপ্রেমের অনবদ্যতায় শাণিত করেছেন নিজেকে। এরই ফলশ্রুতিতে বরাবরই একটি বিশেষ মহলের কূপানলে পড়েছেন। তবুও অদম্য মনোবলে চিড় ধরেনি কখনো।

দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করেন অন্ধকার সরিয়ে বাঙালি জাতিকে আলোর পথে নিয়ে এসেছেন, আত্মমর্যাদাশীল জাতিতে পরিণত করেছেন দেশরত্ন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাজনীতিতে বাঁধা আসবে, ষড়যন্ত্রকারীরা সোচ্চার থাকবেই, খিস্তিখেউর হবেই। এসবকে পায়ের ভৃত্য করে মুজিবাদর্শকে বুকে লালন করে দৃপ্ত পদভারে এগিয়ে যাওয়াই একজন প্রেরণাদীপ্ত, বলিষ্ঠ ছাত্র নেতার উজ্জ্বল প্রতিচ্ছবিই নামাঙ্কিত করবে তাকে।

দশম শ্রেণিতে পড়া অবস্থায় ছাত্রলীগের রাজনীতির হাতেখড়ি নওশেল আহমেদ অনির। রাজননীতির চড়াই উতরাই পেরিয়ে ধাপে ধাপে নিজেকে প্রস্তুত করেন হিমাদ্রিশিখর নেতৃত্বগুণে। ২০১৫ সালে প্রথম সাফল্য ধরা দেয় তার আপন ভুবনে। ২০১৫ সালে ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পান।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ভোট কেন্দ্রে দলীয় নেতা-কর্মীদের সক্রিয় রেখে সম্মুখে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত প্রার্থীর ভোটকে সুরক্ষিত করেন। অতি গুরুত্বপূর্ণ ময়মনসিংহ-৪ সদর আসনে জোট প্রার্থী বেগম রওশন এরশাদের বিজয়কে ত্বরান্বিত করতে সাংগঠনিক নৈপুণ্যে প্রমাণ করেন নিজেকে।

শুধু সংসদ নির্বাচনই নয়, দলীয় প্রতিটি কর্মসূচিতে সাংগঠনিক বিচক্ষণতার অনুপম নজির স্থাপন করেন নওশেল আহমেদ অনি। ময়মনসিংহের রাজনীতির ইতিহাসে এই যাবতকালের সবচেয়ে জনপ্রিয় ও কর্মীবান্ধব নগর পিতা, ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের জননন্দিত মেয়র মো.ইকরামুল হক টিটুর আপত্য স্নেহই তার পথচলার শক্তি এবং সাহস হিসেবেই পরিগণিত হয়েছে সব সময়ই।

প্রতিনিয়ত সাংগঠনিক অভিজ্ঞতার মিশেলে নিজেকে প্রস্ফুটিত করেছেন নওশেল আহমেদ অনি। ২০২১ সালের ৩১ জুলাই ময়মনসিংহ মহানগর ছাত্রলীগের আহ্বায়ক হয়ে তৃণমূল থেকে ছাত্রলীগকে সুসংগঠিত করতে ফ্রন্টলাইনে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। জামাত-বিএনপির রাজনীতিকেও শিক্ষা নগরী ময়মনসিংহের মাঠে পর্যদুস্ত করতে অনি রাজপথে শক্ত অবস্থান গড়েছেন, নিজেকে জানান দিয়েছেন বরাবরই। অন্য অনেকের মতো গর্তে না লুকিয়ে বুকটান করেই অপশক্তিকে প্রকাশ্যে দাঁতভাঙ্গা জবাব দিয়েছেন, হটিয়ে দিয়েছেন রাজনীতির মাঠ থেকে।

যারপরেনাই পরিশ্রমী এই ছাত্রনেতাকে নিয়ে অপরাজনীতির চর্চা হয়েছে, হচ্ছে সময়ে অসময়ে। কিন্তু আদর্শের জন্য জীবনবাজি রাখা অনিকে দমানো যাবে না। ময়মনসিংহের মাটি আওয়ামী লীগের দুর্জেয় ঘাটি। এই ঘাটিতে জননেত্রী, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিজয় কেতন ওড়ানো অনিকে নিয়ে অতীতের মতোই সব ষড়যন্ত্র এবারও মুখ থুবড়ে পড়বে। ষড়যন্ত্রকারীরা খড় কুটোর মতোই ভেসে যাবেন, এমনটিই মনে করছেন ময়মনসিংহ মহানগর ছাত্রলীগের সর্বস্তরের নেতা-কর্মীরা।

কালের আলো/একে/এমএম

Print Friendly, PDF & Email