নতুন শিক্ষাক্রমে শিক্ষার খোলনলচে বদলে ফেলছি : শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিতঃ 9:44 pm | July 19, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

নতুন শিক্ষাক্রম নিয়ে ব্যাপক অপপ্রচার চলছে উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, বলা হচ্ছে ধর্মশিক্ষা বাদ দিয়ে দেওয়া হয়েছে; সব শ্রেণির পাঠ্যসূচি থেকে ইসলাম ধর্ম সম্পর্কিত সবকিছু বাদ দিয়ে দেওয়া হয়েছে। আপনাদের অনুরোধ করব, সত্যতা যাচাই করুন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারে আমাদের অনেক বেশি দায়িত্বশীল হতে হবে।

তিনি বলেন, নতুন শিক্ষাক্রমে শিক্ষার খোলনলচে বদলে ফেলছি। আমরা শিক্ষায় পরিবর্তনের কথা বলছি না, সংস্কারের কথা বলছি না, রূপান্তরের কথা বলছি।

মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এগ্রিকালচার অ্যান্ড টেকনোলজির (আইইউবিএটি) ৬ষ্ঠ সমাবর্তন অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদের প্রতিনিধি হিসেবে সমাবর্তনে সভাপতিত্ব করেন শিক্ষামন্ত্রী।

ডা. দীপু মনি বলেন, সাম্প্রদায়িকতার বিষবাষ্প যেন আমাদের মস্তিষ্ককে আচ্ছন্ন করতে না পারে। সব ধর্মের নাগরিকের অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশে ধর্মান্ধতায় কারো অধিকার যেন ভূলুণ্ঠিত না হয়। আপনারা শুধু ভালো কাজই করবেন না, মন্দ কাজ সামনে আসলে তা সাহসিকতার সঙ্গে প্রতিহত করতে পিছপা হবেন না।

তিনি বলেন, শিক্ষার্থীরা গ্রাজুয়েট হলেও চাকরির বাজারে পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর শিক্ষার্থীদের চেয়ে পিছিয়ে পড়ছে। কাজেই তাদের সফট স্কিলের দিকে মনোযোগী করতে হবে। তার সঙ্গে সততা, নিষ্ঠা, অসাম্প্রদায়িকতা, দেশপ্রেম না থাকলে মনে হয় ভালো কিছু করলাম না বোধহয়। বিদ্যালয়গুলোতে এখন যেভাবে ডিগ্রি দেওয়া হয়, তার পাশাপাশি মডুলার এডুকেশনের দিকে যেতে হবে।

সমাবর্তন অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন আইইউবিএটি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আব্দুর রব। অনুষ্ঠানে সমাবর্তন বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন জর্জিয়ার ককেশাস বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট এবং ইন্টারন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অফ ইউনিভার্সিটি প্রেসিডেন্টসের বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কাখা শেঙ্গেলিয়া।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন আইএসি যুক্তরাজ্যের আবাসিক বিচারক ও ফিনল্যান্ডের অনারারি কনসাল জুলিয়ান এফ ডব্লিউ ফিলিপস। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন আইইউবিএটি বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান জুবায়ের আলিম, বিশ্ববিদ্যালয়টির উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. হামিদা আক্তার বেগম প্রমুখ।

কালের আলো/এসবি/এমএম

Print Friendly, PDF & Email