পার্বত্য সন্ত্রাসীদের প্রতি কঠোর হুঁশিয়ারি আইজিপির, সবাইকে একত্রিত হওয়ার আহ্বান

প্রকাশিতঃ 6:09 pm | May 26, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

পার্বত্য অঞ্চলের সন্ত্রাসীদের প্রতি কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে সবাইকে একত্রিত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার)।

আরও পড়ুন: সেনাবাহিনীর ছেড়ে আসা ক্যাম্পগুলোতে কাজ করবে এপিবিএন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

তিনি বলেছেন, আপনাদেরকে সকল অপকর্ম ছাড়তে হবে। যদি না ছাড়েন তাহলে এলাকার জনগণ আপনাদেরকে ছাড়ানোর ব্যবস্থা করবে। আমরা জনগণের সাথে আছি। দেশের সকল নিরাপত্তা বাহিনী জনগণকে সহায়তা করবে।

আইজিপি আরও বলেন, আপনারা ফিরে আসেন। পার্বত্য জেলার উন্নয়নে শামিল হন। আপনাদেরকে অপহরণ খুনোখুনি, অশান্তির দুষ্ট চক্র থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।

বৃহস্পতিবার (২৬ মে) সকালে রাঙ্গামাটি পুলিশ লাইন্সে ১৮ এপিবিএন রাঙ্গামাটি, ১৯ এপিবিএন বান্দরবান এবং ২০ এপিবিএন খাগড়াছড়ির সদর দপ্তর এবং ডিআইজি, এপিবিএন (পার্বত্য জেলাসমূহ) এর কার্যালয়ের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

ড. বেনজীর আহমেদ বলেন, পার্বত্য অঞ্চলে শান্তির সুবাতাস প্রতিষ্ঠার জন্য ১৯৯৭ সালে শান্তি চুক্তি করা হয়। শান্তি চুক্তির মূল লক্ষ্য ছিল, এ অঞ্চলের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন। প্রাণহানি, রক্তপাত, অশান্তি, খুনোখুনির পরিবর্তে এ অঞ্চলের মানুষকে বাংলাদেশের মূলধারার সাথে যুক্ত করে এগিয়ে নেয়াই মূলত শান্তি চুক্তির মূল উদ্দেশ্য।

তিনি বলেন, এ অঞ্চলের মানুষের পরম সৌভাগ্য শান্তিচুক্তির রূপকার যিনি তিনি আজ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী।
আইজিপি বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে এ অঞ্চলে আমরা রক্তের হোলি খেলার অপচেষ্টা লক্ষ্য করছি। রক্তপাত করে, অশান্তি সৃষ্টি করে এ অঞ্চলের মানুষকে বিভিন্নভাবে অত্যাচারিত করা হচ্ছে।

পুলিশপ্রধান আরও বলেন, মাত্র গুটিকয়েক লোক সন্ত্রাসের সাথে যুক্ত। রাষ্ট্র এবং জনগণের কাছে এরা তুচ্ছ। সন্ত্রাস, অপহরণের বিরুদ্ধে একটাই কাজ আমাদের বিজয়ী হওয়া। সবার হাত একত্রিত হলে সবকিছুই সম্ভব।

রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ডের বিচার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ এলাকায় অনেক রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড সংঘঠিত হয়েছে। কিন্তু মামলার সাক্ষী দিতে কেউ এগিয়ে আসেননি। তিনি বলেন, প্রয়োজন হলে প্রত্যেক সাক্ষীর নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হবে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোঃ আখতার হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান এমপি।

কালের আলো/ডিএস/এমএম

Print Friendly, PDF & Email