ঢাকা সিএমএইচে অনন্ত সমরে ভাস্কর্য ও বিভিন্ন স্থাপনার উদ্বোধন করলেন সেনাপ্রধান

প্রকাশিতঃ 5:21 pm | December 06, 2021

নিজস্ব সংবাদদাতা, কালের আলো :

মহান মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশ আর্মি মেডিকেল কোরের সদস্যদের আত্মত্যাগ শ্রদ্ধার সঙ্গেই স্মরণ করে বাঙালি জাতি। করোনা দুর্যোগেও চিকিৎসা সেবায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছে সিএমএইচ’র চিকিৎসকেরা। অনেকেই উৎসর্গ করেছেন জীবন।

১৯৭১ থেকে ২০২১- মহান স্বাধীনতা সংগ্রাম এবং অতিমারি করোনায় আত্মোৎসর্গকারী সদস্যদের স্মৃতিকে চির জাগরুক করে রাখতে ঢাকা সিএমএইচে নির্মাণ করা হয়েছে ‘অনন্ত সমরে’ ভাস্কর্য।

সোমবার (০৬ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল ড. এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেছেন এই স্মৃতি ভাস্কর্যের।

আন্ত:বাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) জানিয়েছে, এদিন সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ ঢাকা সেনানিবাসস্থ সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল (সিএমএইচ) পরিদর্শন করেন এবং নবনির্মিত অনন্ত সমরে ভাস্কর্যসহ নতুন চারটি স্থাপনা উদ্বোধন করেন।

নবনির্মিত স্থাপনার মধ্যে রয়েছে এ্যানেস্থেসিয়া বহির্বিভাগ ও চক্ষু অপারেশন থিয়েটার, লেজার ভিশন কেন্দ্র এবং স্লিপল্যাব।

চিকিৎসা ক্ষেত্রে ঢাকা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল (সিএমএইচ) অনেক এগিয়ে যাচ্ছে বলেও মন্তব্য করেন সেনাপ্রধান।

আইএসপিআর জানিয়েছে, নতুন এ্যানেস্থেসিয়া বহির্বিভাগে রয়েছে পুরুষ ও মহিলাদের জন্য পৃথক পর্যবেক্ষণ কক্ষ এবং বেশ কয়েকটি অপেক্ষাগার যা রোগীদের অস্ত্রপচার পূর্ববর্তী এ্যানেস্থেসিয়া চেক আপের জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয়।

সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল ঢাকা সশস্ত্র বাহিনীর একটি টারশিয়ারী লেভেল রেফারেল এবং ট্রেনিং হাসপাতাল যেখানে প্রতিনিয়ত রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। ফলে নতুন এই এ্যানেস্থেসিয়া বিভাগ প্রতিস্থাপন নিঃসন্দেহে একটি যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত।

চক্ষু অপারেশন থিয়েটার ও লেজার ভিশন কেন্দ্র প্রতিস্থাপনের সাথে অত্র হাসপাতালের চক্ষু বিভাগের চিকিৎসা সেবার মান আরও উন্নত করা সম্ভব হবে।

এই বিভাগ প্রতিস্থাপনের মাধ্যমে চক্ষু বিষয়ক জটিল এবং উন্নত চিকিৎসা সেবা যেমন, ‘লেজার রিফ্লাকটিভ সার্জারী’ ও অন্যান্য লেজার সার্জারী করাসহ সর্বোচ্চ চিকিৎসা সেবা প্রদানে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

এছাড়াও, এই হাসপাতালে স্লিপল্যাব প্রতিস্থাপন করা হয়েছে। এই স্লিপল্যাব সিএমএইচ ঢাকার একটি নতুন সংযোজনকৃত প্রকল্প যার মাধ্যমে ‘স্লিপ ডিস অর্ডার’ এর মতো গুরুত্বপূর্ণ রোগ নির্ণয় এবং এর উন্নত চিকিৎসা সেবা প্রদানে অত্যন্ত সহায়ক ভূমিকা পালন করবে।

কালের আলো/এমএইচ/এমকে

Print Friendly, PDF & Email