ছাত্র নিহত, বিএনপি-জামায়াতের অপকর্ম কি না প্রশ্ন কাদেরের

প্রকাশিতঃ 7:57 pm | December 01, 2021

নিজস্ব সংবাদদাতা, কালের আলোঃ

রাজধানীর রামপুরায় বাসচাপায় শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনা নিছক দুর্ঘটনা নাকি পূর্ব পরিকল্পিত সেই প্রশ্ন তুলেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

বুধবার (১ ডিসেম্বর) রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি উপ-কমিটি আয়োজিত ‘৫জি: দি ফ্রন্টিয়ার টেকনোলজি’ শীর্ষক সেমিনারে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনা বিএনপি-জামায়াতের অতীত সহিংস অপকর্মের পুনরাবৃত্তি কি না সেই প্রশ্নও তোলেন ওবায়দুল কাদের। এই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ায় তিনি গভীর শোকাহত ও ব্যথিত হয়েছেন বলেও জানান তিনি।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জানান, প্রত্যক্ষদর্শীদের তথ্য অনুযায়ী রাত ১০টা ৪৫ মিনিটে ঘটনাটি ঘটে। এর ১২ মিনিট পর ১০টা ৫৭ মিনিটে ‘নিরাপদ সড়ক চাই’নামে ফেসবুক পেজ থেকে ঘটনাস্থল থেকে লাইভ দেওয়া হয়।

তিনি বলেন, এই ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে ১৭টি বাসে (৮টি) আগুন দেওয়া হয় এবং অসংখ্য গাড়ি ভাঙচুর করা হয়। এটা নিছক দুর্ঘটনা নাকি পূর্ব পরিকল্পিত?

ওবায়দুল কাদের বলেন, রাত ১১টায় জামায়াতের পরিচালিত ‘টেলিগ্রাম’ চ্যানেলে খবরটি প্রকাশিত হয় এবং দুর্ঘটনার স্থান থেকেই সমস্ত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে খবরটি ছড়িয়ে পড়ে। খবরটি ছড়িয়ে পড়ার ১০ মিনিটের মধ্যেই প্রায় ১৫টি বাসে আগুনও দেওয়া শেষ। এখন প্রশ্ন হচ্ছে বিষয়টি আসলেই দুর্ঘটনা কি না।

তিনি বলেন, ঘটনার ১২ মিনিটেই নিরাপদ সড়ক চাই পেজ লাইভে গেল কীভাবে? নাকি তারা আগে থেকেই প্রস্তুত ছিল? বাশেরকেল্লা ১৫ মিনিটের মধ্যেই সব খবর পেয়ে গেল কীভাবে? আর বাকি ১০ মিনিটেই ১০টি গাড়িতে আগুন কীভাবে দেওয়া হলো?

ওবায়দুল কাদের প্রশ্ন করে জানতে চান, এতো জনবল রাত ১১টার পর ঘটনাস্থলে এলো কীভাবে? তাহলে তারা কী আগেই প্রস্তুত ছিল?

তিনি আরও বলেন, সেনাবাহিনী, পুলিশ বা ফায়ার বিগ্রেড এতো তাড়াতাড়ি পৌঁছাতে পারে না, যত দ্রুত গাড়ি পোড়ানো হয়েছে। এতো রাতে অল্প বয়সী শিক্ষার্থীরা কী এত দ্রুত পৌঁছে গেছে?

ঘটনায় জড়িতদের শাস্তির ব্যাপারে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, এই ঘটনায় যারা জড়িত তাদের আইনের আওতায় আনতে সরকার বদ্ধপরিকর।

এদিকে ফাইভ-জি নিয়ে তিনি বলেন, ২০২৩ সালের মধ্যেই পর্যায়ক্রমে এই ফাইভ-জি সেবা দেশের অন্যান্য বিভাগীয় শহর, শিল্পপ্রতিষ্ঠান নির্ভর এলাকাসমূহে বিস্তারের পরিকল্পনা রয়েছে। আগামী ১২ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় এ পরীক্ষামূলক কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

কালের আলো/টিআরকে/এসআইএল

Print Friendly, PDF & Email