ময়মনসিংহে জুয়া খেলায় বাধা দেওয়ায় স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা

প্রকাশিতঃ 6:51 pm | April 01, 2018

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

জুয়া খেলায় বাধা দেওয়ায় স্ত্রী জেসমিন আক্তারের (৩০) সঙ্গে প্রায়ই ঝগড়া হতো স্বামী আবুল কাশেমের। এর জেরে ক্ষিপ্ত হয়ে ঘুমন্ত স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা করেন কাশেম।

আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে এমন কথা জানিয়েছেন ঘাতক কাশেম। চাঞ্চল্যকর এ হত্যাকাণ্ডের ১১ মাস পলাতক থাকার পর স্থানীয় এলাকাবাসীর সহায়তায় কাশেমকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

রোববার দুপুরে ভালুকা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন অর রশিদ কালের আলোকে এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, শনিবার (৩১ মার্চ) কাশেম আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। পরে তাকে ময়মনসিংহ কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়।

পুলিশ জানায়, প্রায় ২৮ বছর আগে টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার মৃত হাছেন আলী ফকিরের ছেলে আবুল কাশেমের সঙ্গে বিয়ে হয় জেলার ভালুকা উপজেলার সোয়াইল গ্রামের মৃত কাশেম আলী খানের মেয়ে জেসমিনের। বিয়ের পর থেকেই শ্বশুরবাড়িতেই থাকতেন কাশেম।

তবে তার জুয়া খেলার নেশা থাকায় স্ত্রীর সঙ্গে প্রায়ই ঝগড়া লেগেই থাকতো। এ ঘটনার জেরে গত বছরের ৮ জুন নিজ ঘরে ঘুমন্ত স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা করেন কাশেম। পরে জেসমিনের ভাই আজিজুর রহমান খান কাশেমকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

ওই বছরের ১১ নভেম্বর আদালতে তার বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ। এ মামলার পর থেকেই গ্রেফতার এড়াতে আত্মগোপনে ছিলেন কাশেম। পরে শুক্রবার (৩০ মার্চ) রাতে উপজেলার মল্লিকবাড়ী এলাকায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে কাশেমকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

 

কালের আলো/ওএইচ

Print Friendly, PDF & Email