রাজধানীর আরও তিন ক্যাসিনোতে অভিযান, আটক ৩৯

প্রকাশিতঃ 12:48 am | September 19, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

মতিঝিলের ফকিরাপুলে যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়ার ইয়ংমেন্স ক্লাবের পর ঢাকার আরও তিনটি ক্লাবে অভিযান চালিয়েছে র‌্যাব। এসব ক্লাবে অবৈধভাবে জুয়ার আসর বসানোয় আরো ৩৯ জনকে আটক করা হয়েছে, উদ্ধার করা হয়েছে জুয়ার ২৩ লাখ টাকা।

ক্লাবগুলো হলো- ফকিরাপুলের ঢাকা ওয়ান্ডারস ক্লাব, গুলিস্তানের মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়াচক্র এবং বনানীর আহমদ টাওয়ারের গোল্ডেন ঢাকা বাংলাদেশ।

বুধবার(১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ইয়ংমেন্স ক্লাবে অভিযানের পর ফকিরাপুলের ওয়ান্ডারাস ক্লাবে অভিযান চালিয়ে নগদ ২০ লাখ ২৭ হাজার টাকা, জুয়ার সরঞ্জাম, ২০ হাজার ৫০০ টাকার জাল নোট, বিপুল পরিমাণ মদ ও মাদক জব্দ করা হয়।

সারওয়ার আলম আরো জানান, এছাড়া গুলিস্তানের মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়াচক্রে অভিযান চালিয়ে জুয়ার সরঞ্জাম, জুয়া খেলার তিন লাখ টাকা ও একটি কষ্টি পাথরের মূর্তিসহ ৩৯ জনকে আটক করা হয়েছে।

অন্যদিকে বনানীর আহমদ টাওয়ারে ‘গোল্ডেন ঢাকা বাংলাদেশ’ নামে একটি ক্যাসিনোতে অভিযান চালিয়ে সেটি তালাবদ্ধ অবস্থায় দেখা যায়। ক্লাবটি সিলগালা করে দেয়া হয়, পরে সেখানে অভিযান চালানো হবে বলেও জানান র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

জানা গেছে, ফকিরাপুলের ওয়ান্ডারার্স ক্লাবে অভিযানের সময় সেখানে থাকা কয়েকজন পরিচালক পালিয়ে যান। এই ক্লাবের সভাপতি হলেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি মোল্লা মোহাম্মদ আবু কায়সার।

ডিএসসিসির ৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর এ কে এম মোমিনুল হক ওই ক্লাবে জুয়ার আসর বসানোর সঙ্গে জড়িত।

উল্লেখ্য, বুধবার সন্ধ্যায় ফকিরাপুলে ইয়ংমেন্স ক্লাবে অবৈধভাবে জুয়ার আসর চালানোর অভিযোগে যুবলীগের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। গুলশানে নিজ বাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

একই সময় ফকিরাপুলের ওই ক্লাবে অভিযান চালিয়ে দুই নারীসহ ১৪২ জনকে আটক করে বিভিন্ন মেয়াদে দণ্ড দেন ভ্রাম্যমান আদালত। ক্লাবে পাওয়া যায় মদ আর জুয়ার বিপুল আয়োজন। সেখান থেকে জব্দ করা হয় বিপুল পরিমাণ অর্থও।

কালের আলো/বিএআর

Print Friendly, PDF & Email