বাইডেনের প্রশাসনে গুরুত্বপূর্ণ পদে বাংলাদেশি বংশোদ্ভুত জাইন সিদ্দিক

প্রকাশিতঃ 12:16 am | January 15, 2021

ডেস্ক রিপোর্ট, কালের আলোঃ

আর কয়েকদিন পরই যুক্তরাষ্ট্রের ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নেবেন জো বাইডেন। এরই মধ্যে নিজের প্রশাসন সাজাতে শুরু করেছেন তিনি। বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের পাশাপাশি হোয়াইট হাউজের গুরত্বপূর্ণ পদগুলোর জন্যও যোগ্য প্রার্থী বাছাইয়ের প্রক্রিয়া শুরু করেছেন নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

এরই ধারাবাহিকতায় হোয়াইট হাউজের ডেপুটি চিফ অব স্টাফ অফিসের গুরুত্বপূর্ণ একটি পদে বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত জাইন সিদ্দিককে বেছে নিয়েছেন তিনি। খবর পিটিআই।

বাংলাদেশের বার্তা সংস্থা ইউএনবি ও ভারতীয় বার্তা সংস্থা প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়ার (পিটিআই) খবরে বলা হয়, জাইন সিদ্দিক প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের কোনো প্রশাসনের উচ্চ পদে নিযুক্ত হলেন। বাংলাদেশে জন্ম নিলেও তিনি বেড়ে উঠেছেন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে। পড়াশোনা করেছেন প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয় ও ইয়েল ল স্কুলে।

জাইন বর্তমানে বাইডেন-হ্যারিস ট্রানজিশন টিমের অভ্যন্তরীণ ও অর্থনৈতিক দলের চিফ অব স্টাফের দায়িত্ব পালন করছেন। এর আগে তিনি নবনির্বাচিত ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের ভাইস প্রেসিডেনশিয়াল বিতর্কের প্রস্তুতি দলের সদস্য হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন।

এর আগে বেটো ও’রোরকের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনী প্রচার দলের ডেপুটি পলিসি ডিরেক্টর ও তাঁর সিনেট নির্বাচনের প্রচার দলের সিনিয়র পলিসি অ্যাডভাইজার হিসেবে কাজ করেন। এ ছাড়া বিভিন্ন সময়ে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি এলেনা কাগান, ডিসি সার্কিটের ইউএস কোর্ট অব আপিলসের বিচারক ডেভিড টাটেল ও ক্যালিফোর্নিয়ার সেন্ট্রাল ডিস্ট্রিক্টের ডিস্ট্রিক্ট কোর্টের বিচারক ডিন প্রিগারসনের কার্যালয়ে আইন কর্মকর্তা হিসেবে নিযুক্ত ছিলেন।

নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আগেই বলেছিলেন, তাঁর প্রশাসন হবে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের সবচেয়ে বৈচিত্র্যপূর্ণ। এখন পর্যন্ত সে কথা তিনি রেখেছেন। মন্ত্রিসভাসহ প্রশাসনের নানা গুরুত্বপূর্ণ পদে নিয়োগের মাধ্যমে বহু প্রথমের জন্ম দিয়েছেন বাইডেন। বাংলাদেশি জাইন সিদ্দিকও এ তালিকায় যুক্ত হলেন। এই বৈচিত্র্যময় কর্মকর্তারা মার্কিন প্রশাসনকে অনেক বেশি বেগবান ও জনমুখী করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

একই দিনে বাইডেন প্রশাসনে সম্ভাব্য নিয়োগের সুখবর পাওয়াদের মধ্যে রয়েছেন—প্রেসিডেন্টের পরামর্শকদের জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা হিসেবে জন ম্যাককার্থি, ডেপুটি চিফ অব স্টাফের জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা লিসা কনকে, ব্যবস্থাপনা ও প্রশাসনবিষয়ক চিফ অব স্টাফ মাইকেল লিচ, বৈচিত্র্য ও অন্তর্ভুক্তি বিষয়ক মুখ্য পরিচালক ক্রিশ্চিয়ান পিলেসহ কয়েকজন।

এ সম্পর্কিত ঘোষণায় বাইডেনের ক্ষমতা হস্তান্তর বিষয়ক দলের পক্ষ থেকে বাইডেনকে উদ্ধৃত করে বলা হয়, ‘আমাদের দেশে বিদ্যমান বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা ও সরকারের ওপর জন-আস্থা ফিরিয়ে আনতে আমাদের অবশ্যই অভিজ্ঞ, নৈতিক ও নিবেদিত লোকেদের সমন্বয়ে প্রশাসন সাজাতে হবে। এই ব্যক্তিবর্গ হোয়াইট হাউসের কর্মী দলে যুক্ত হচ্ছেন, যারা পরিশ্রমী পরিবারগুলোর সদস্যদের জীবনের মান উন্নয়নে নতুন করে দেশ গড়ার জন্য প্রস্তুত হয়ে আছেন।’

আর ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস আশা প্রকাশ করে বলেন, ‘এই নিবেদিত সরকারি কর্মকর্তারা জাতির সবচেয়ে ভালো প্রতিনিধিত্ব করবেন। মার্কিন জনগণের সামনে যে অভাবিত চ্যালেঞ্জ, তা মোকাবিলার জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা তাঁদের রয়েছে। এই মহামারি মোকাবিলার সঙ্গে সঙ্গে পরিবার ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানের জন্য আরও সহায়তা দেওয়া এবং সব মার্কিনকে নিয়ে একসঙ্গে পুরো দেশকে নতুন করে গড়ায় আমি ও নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এই কর্মকর্তাদের সঙ্গে কাজ করতে উদ্‌গ্রীব হয়ে আছি।’

কালের আলো/বিএম

Print Friendly, PDF & Email