সকালে মাঠে থাকলে হার্ট অ্যাটাকই করে ফেলতাম: পাপন

প্রকাশিতঃ 8:40 pm | May 23, 2022

স্পোর্টস ডেস্ক, কালের আলো:

মিরপুর টেস্টের প্রথম দিন শেষে ভালো অবস্থানে আছে বাংলাদেশ। প্রথম দিনশেষে ৫ উইকেট হারিয়ে ২৭৭ রান তুলেছে টাইগাররা। তবে বাংলাদেশ ওই ৫ উইকেট হারিয়েছে টেস্টের সকালের ৪১ বলের মধ্যে। সকালে ব্যাটিংয়ে নেমে ৬ ওভার ৫ বলে ২৪ রান তুলতেই অর্ধেক ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে বসে বাংলাদেশ।

ঠিক সেই সময় মাঠে ছিলেন না বলে নিজেকে সৌভাগ্যবান দাবি করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি সাংবাদিক সম্মেলনে জানিয়েছেন, সেই সময় মাঠে থাকলে হার্ট অ্যাটাকই করে বসতেন তিনি।

আইসিসির সভাপতি গ্রেগ বার্কলেকে নিয়ে মিরপুরে সাংবাদিক সম্মেলনে এসে এই কথা বলেন বিসিবি বস। নাজমুল হাসানের ভাষ্যে, ‘ওই সময় (৫ উইকেট হারানোর মুহূর্তে) থাকলে হার্ট অ্যাটাক হতো। আল্লাহর রহমত আমি ছিলাম না। আমরা তখন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলাম।

প্রধানমন্ত্রী আমাকে জিজ্ঞেস করেছিলেন, এই খেলার কী অবস্থা? আমি তখন বলেছি, আপা, সাহস নাই দেখার। আমি মাঠে না যাওয়া পর্যন্ত খুলছি না।’

দল খাদের কিনারে থেকে মুশফিকুর রহমান ও লিটন দাসের ব্যাটে ভর করে দারুণ অবস্থানে থেকে মাঠ ছেড়েছেন। এই দুই ব্যাটসম্যান ষষ্ঠ উইকেটে রেকর্ড ২৫৩ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েছেন। লিটন-মুশফিক দুইজনই পেয়েছেন শতকের দেখা। এরমধ্যে লিটন তো ক্যারিয়ারসেরা ১৩৫ রানে অপরাজিত আছেন। মুশফিক অপরাজিত আছেন ১১৫ রানে।

নাজমুল হাসান পাপন এই দুই ক্রিকেটারকে অভিবাদন জানাতে ভুল করেননি। তিনি আরও যোগ করেন, ‘মাঠে এসে ঢোকার সময় লিফটে উঠে দেখলাম এই অবস্থা। এটা তো বড় ধরনের একটা শক! তো যাই হোক, যেভাবে মুশফিক ও লিটন ব্যাট করছে এটি বিশেষ কৃতিত্বের দাবিদার। এটি অবিশ্বাস্য। আমি নিশ্চিত সবাই এ জুটিতে হাঁফ ছেড়ে বেঁচেছে। এমন চাপে ব্যাটিং করাটা সহজ ছিল না। ওরা অসাধারণ খেলেছে।’

সকালে উইকেট হারানোতে উইকেট এবং গামিনি ডি সিলভাকে নিয়ে আবার প্রশ্ন ওঠে। তবে সেটি উড়িয়ে দিয়ে নাজমুল হাসান আরও জানিয়েছেন, মিরপুরে এদিন টেস্ট উইকেটই বানানো হয়েছে। উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য ভালোও ছিল। টিম ম্যানেজমেন্ট এবং প্লেয়াররাও জানতেন এমন উইকেটের বিষয়ে।

নাজমুল হাসানের ভাষ্যে, ‘আমরা টসে জিতে ব্যাটিং নিয়ে ভেবেছিলাম, আমরা ভালো রান করতে পারবো। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে আমাদের ওপরের দিকে কেউই দাঁড়াতে পারেনি। মানে ৬ ওভার ৫ বলের মধ্যে আমাদের খেলার অর্ধেক শেষ। উইকেট কিন্তু প্রপার টেস্ট উইকেটের মতো করার চেষ্টা করা হয়েছে। উইকেটের কোনো দোষ নাই। আমাদের টিম ম্যানেজমেন্ট, প্লেয়ার সবাই দেখেই গেছে।’

কালের আলো/এমএইচ/এসি

Print Friendly, PDF & Email