সবার অংশগ্রহণ নিশ্চিত হলেই নির্বাচন সুষ্ঠু হবে: সিইসি

প্রকাশিতঃ 8:24 pm | March 22, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

৫০ থেকে ৬০ শতাংশ গ্রহণযোগ্য নির্বাচন হলে তাতেই সফলতা দেখছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল।

তিনি বলেছেন, নির্বাচনটাকে যদি অবাধ, সুষ্ঠু করা যায় তাহলে সেটা সকলের অংশগ্রহণে হয় সেটা সফলতা হতে পারে। শতভাগ সফলতা হয়ত হবে না; কেউ কেউ বলেছেন ৫০-৬০ শতাংশও যদি গ্রহণযোগ্য হয় তাহলে সেটাও বড় সফলতা।

মঙ্গলবার (২২ মার্চ) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে বিশিষ্ট নাগরিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, আমাদের হারানোর কিছু নেই। প্রধানমন্ত্রী হওয়ার সম্ভাবনা নেই, যে বয়স হয়ে গেছে। কাজেই আমাদের আসলে পাওয়ার কিছু নেই। এখান থেকে জীবনের শেষ প্রান্তে এসে আমরা যদি ইতিবাচক কিছু করতে পারি, আপানারা যে সাজেশনগুলো দিয়েছেন, ওগুলোর আলোকে বিবেচনায় নিয়ে, নির্বাচনকে যদি অবাধ ও সুষ্ঠু করা যায়, তাহলে সেটা আমাদের সবার অংশগ্রহণে সেটা একটা সফলতা হতে পারে।

তিনি বলেন, ১শ শতাংশ সফলতা হয়তো হবে না, হয় না কখনো। কিন্তু কেউ বলেছেন সেটা যদি ৫০ শতাংশ ৬০ শতাংশও গ্রহণযোগ্য, সেটাও বড় সফলতা।

সিইসি আরও বলেন, বিগত নির্বাচনে বেশ কিছু কারণে মানুষ মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন। কেউ বলছে ভোট দিচ্ছে না। তবে, নারায়ণগঞ্জের ইলেকশন খুব সুন্দর হয়েছে। ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমের এটা একটা বড় দিক।

তিনি বলেন, ইভিএম ব্যবহারে অনেকেই অভ্যস্ত নয়। মেশিনের মাধ্যমে কোনো ডিজিটাল কারচুপি হয় কিনা, পৃথিবীর অনেক দেশ ইভিএম বাতিল করে দিয়েছে, কেন করলো সেটা গবেষণা করা উচিত বলেও অনেকে মতামত দিয়েছেন। এছাড়া যদি কোনো ধরনের কারচুপি হয়ে থাকে তাহলে রিকাউন্টিং করা যাবে কিনা এটার কোনো ব্যবস্থা আছে কিনা তা আমাদেরও বুঝতে হবে। আমাদের টেকনিক্যাল কমিটির মিটিং করে আমাদের একটা ধারণা নিতে হবে।

এর আগে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (ইসি) কাজী হাবিবুল আউয়ালের সভাপতিত্বে সংলাপে তিন নির্বাচন কমিশনার, ইসি সচিবসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া আমন্ত্রিত ৩৯ বিশিষ্ট নাগরিকের মধ্যে উপস্থিত ১৭ জন হলেন- খুশী কবির, সঞ্জীব দ্রং, রোবায়েত ফেরদৌস, আলী ইমাম মজুমদার, আব্দুল লতিফ মণ্ডল, মহিউদ্দিন আহমেদ, সিনহা এম সাঈদ, অধ্যাপক নজরুল ইসলাম, ফরাস উদ্দিন, ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, সিপিডির ফেলো মোস্তাফিজুর রহমান, দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য, আবু আলম শহীদ খান, ড. ইফতেখারুজ্জামান, শাহীন আনাম, জহিরুল আলম ও অধ্যাপক শেখ হাফিজুর রহমান।

কালের আলো/এসবি/এমএম

Print Friendly, PDF & Email