খালের উন্নয়নে নেদারল্যান্ডসের সঙ্গে কাজ করবে ডিএনসিসি

প্রকাশিতঃ 10:05 pm | May 29, 2024

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

রাজধানীর কল্যাণপুর খালের টেকসই উন্নয়নে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) ও ডাচ ওয়াটার সেক্টর কনসোর্টিয়ামের মধ্যে সমঝোতা স্মারক সই হয়েছে।

বুধবার (২৯ মে) দুপুরে গুলশানে নগর ভবনে মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম এবং ঢাকায় নিযুক্ত নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূত ইরমা ভ্যান ডুরেনের উপস্থিতিতে এই সমঝোতা স্মারক সই হয়।

ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মীর খায়রুল আলম এবং সিডিআর ইন্টারন্যাশনাল বিভি বাংলাদেশের প্রকল্প ব্যবস্থাপক সিপ্রিয়ান হেনড্রিক্স সমঝোতা স্মারক সই করেন।

সিডিআর ইন্টারন্যাশনাল, এইচকেভি, উইটভিন অ্যান্ড বস, ওশানবাউন্ড, রেড অরেঞ্জ লিমিটেড ও আইডি ড্রেজিংয়ের সমন্বয়ে গঠিত ‘ডাচ ওয়াটার সেক্টর কনসোর্টিয়াম’।

এই চুক্তির মাধ্যমে ঢাকার জন্য জলবায়ু সহনশীল, প্রকৃতিভিত্তিক, ঝড়ের মাধ্যমে সৃষ্ট জলাবদ্ধতা নিরসন-কল্যাণপুর খাল প্রকল্পের আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়েছে।

জলাবদ্ধতা স্থায়ীভাবে নিরসনে কল্যাণপুর খালকে পুনরুদ্ধার করে আগের অবস্থায় নিয়ে যাওয়া এবং খালের পানির গুণমান উন্নত করা প্রকল্পের লক্ষ্য। এর মাধ্যমে একদিকে যেমন কল্যাণপুরের চারপাশের সামগ্রিক পরিবেশের উন্নত হবে, তেমনি প্রস্তাবিত কল্যাণপুর হাইড্রো-ইকো-পার্কসহ অন্যান্য নগর উন্নয়ন উদ্যোগের সাফল্যকে ত্বরান্বিত করবে বলে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানান ডিএনসিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা মকবুল হোসাইন।

অনুষ্ঠানে মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, নেদারল্যান্ডসের শহরগুলোতে দেখেছি, সেখানে দৃষ্টিনন্দন খাল। খালগুলোতে নৌযান চলাচল করে। নেদারল্যান্ডসের শহরগুলোর খালের আদলে ঢাকার খালগুলোর উন্নয়ন করতে চাই। জলাবদ্ধতা নিরসনে নেদারল্যান্ডসের উত্তম কার্যক্রমের মডেল ও অভিজ্ঞতা আমাদের জন্য সহায়ক হবে।

ঢাকায় নিযুক্ত নেদারল্যান্ডসের রাষ্ট্রদূত ইরমা ভ্যান ডুরেন নেদারল্যান্ডস ও বাংলাদেশের মধ্যে দীর্ঘস্থায়ী অংশীদারিত্বের কথা তুলে ধরেন।

রাষ্ট্রদূত বলেন, জলাধার ব্যবস্থাপনায় নেদারল্যান্ডস ও বাংলাদেশ দীর্ঘদিনের অংশীদার। নেদারল্যান্ডস বাংলাদেশ ডেল্টা প্ল্যান ২১০০ এবং পানি অবকাঠামো উন্নয়নে অন্যান্য অনেক উদ্যোগের গর্বিত অংশীদার। এই প্রকল্পটি একটি টেকসই এবং জলবায়ু সহনশীল ভবিষ্যতের দিকে নতুন যাত্রা চিহ্নিত করবে।

সমঝোতা স্মারক সই অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ডিএনসিসির সচিব মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মঈন উদ্দিন, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ ফিদা হাসান প্রমুখ।

কালের আলো/ডিএস/এমএম

Print Friendly, PDF & Email