‘লাব্বাইকা আল্লাহুম্মা লাব্বাইক’ ধ্বনিতে মুখরিত আরাফাতের ময়দান

প্রকাশিতঃ 3:39 pm | July 30, 2020

ডেস্ক রিপোর্ট, কালের আলো:

মুসলমানদের সবচেয়ে বড় সম্মেলন পবিত্র হজের মূলপর্ব শুরু হয়েছে। আজ পবিত্র হজ। ‘লাব্বাইকা আল্লাহুম্মা লাব্বাইক’ ধ্বনিতে মুখর আরাফাতের ময়দান। করোনা মহামারির কারণে সৌদি আরব কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা অনুযায়ী, এবার মাত্র এক হাজার মুসল্লি হজ পালনের সুযোগ পাচ্ছেন। হজের খুতবা শুনে আরাফাতের ময়দানে জোহর ও আছরের নামাজ আদায় করবেন হাজিরা।

গতকাল বুধবার ফজরের নামাজ আদায়ের পর কাবা শরিফ তাওয়াফ করে মিনায় যাওয়ার মাধ্যমে শুরু হয় এবারের হজের মূল আনুষ্ঠানিকতা।

করোনা মহামারির কারণে যাঁরা আগে হজ করেননি, এমন এক হাজার জনই এবার হজের সুযোগ পেয়েছেন। তাঁদের মধ্যে দুই-তৃতীয়াংশ মুসল্লিকে ১৬০টি দেশ থেকে বাছাই করে নেওয়া হয়েছে। তাঁরা সবাই সৌদি আরব প্রবাসী। বাকি এক-তৃতীয়াংশ মুসল্লি সৌদির নিরাপত্তাকর্মী ও চিকিৎসক। হজে অংশ নেওয়া সবার বয়সই ২০ থেকে ৫০-এর মধ্যে। এবার কোনো হাজিকে কাবা শরিফ স্পর্শ করার অনুমতি দেওয়া হয়নি। পাঁচ ফুট দুরে থেকে তাওয়াফ, নামাজে অংশগ্রহণ, সাঈসহ হজের সব কার্যক্রম পালন করা হচ্ছে।

আজ বৃহস্পতিবার ৯ জিলহজ ফজরের নামাজ আদায় শেষে আরাফাতের ময়দানের দিকে যাত্রা শুরু করেন হাজিরা। তাঁদের কণ্ঠে ধ্বনিত হচ্ছে, মহান আল্লাহর প্রশংসা, ধ্বনিত হচ্ছে ‘লাব্বাইকা আল্লাহুম্মা লাব্বাইক, লাব্বাইকা লা শারিকা লাকা লাব্বাইক, ইন্নাল হামদা ওয়ান্নি’মাতা লাকা ওয়াল-মুলক’- তালবিয়া।

এদিন সূর্যাস্ত পর্যন্ত আরাফাতে অবস্থান করবেন হাজিরা। এক সঙ্গে আদায় করবেন জোহর ও আসরের নামাজ। এবার মসজিদে নামিরাহ থেকে হজের খুতবা দিচ্ছেন ৯২ বছর বয়সী শায়খ ড. আবদুল্লাহ বিন সোলায়মান আল মানিয়া।

হাজিরা যখন আরাফাতের ময়দানে, তখন কাবা শরিফের গায়ে নতুন গিলাফ পরানো হবে। এই গিলাফ বা কিসওয়া তৈরিতে ব্যবহৃত হয় কালো রঙের ৬৭০ কেজি খাঁটি রেশম।

সূর্যাস্তের পর মুজদালিফায় গিয়ে মাগরিব ও এশার নামাজ একত্রে আদায় করবেন হাজিরা। রাতে অবস্থানও করবেন সেখানে। মুজদালিফায় ফজরের নামাজ আদায় করে সকালে হাজিরা ফিরবেন মিনায়।

আগামীকাল শুক্রবার ১০ জিলহজ হাজিরা মিনায় ফিরে শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে সর্বোচ্চ ৫০ জন একত্রে জামারাতুল আকাবায় পাথর নিক্ষেপ করবেন। নিক্ষেপের নুড়িপাথর হজ কর্তৃপক্ষ বিশেষ ব্যাগের মাধ্যমে এবার সরবরাহ করবে।

এরপর আল্লাহর সন্তুষ্টির আশায় হাজিরা পশু কোরবানি করবেন। সবশেষে মাথা মুণ্ডন এবং তাওয়াফে জিয়ারত করবেন হাজিরা।

কালের আলো/এএস/এমকেআর

Print Friendly, PDF & Email