তিন নারীর দেহে বাঁধা ছিল ১৫ কেজি গাঁজা

প্রকাশিতঃ 8:32 am | June 22, 2024

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি, কালের আলো:

লক্ষ্মীপুরে ১৫ কেজি গাঁজাসহ জোবেদা বেগম, বিথি আক্তার ও মাহফুজা আক্তার নামে তিন নারীকে আটক করা হয়েছে। গাঁজাগুলো প্যাকেট করে তারা দেহে বেঁধে ভোলার উদ্দেশ্যে কুমিল্লা থেকে আসেন।

গতকাল লক্ষ্মীপুর-ভোলা-বরিশাল নৌরুটের সদর উপজেলার মজুচৌধুরীরহাট লঞ্চঘাট থেকে ওই নারীদের আটক করে নৌ-পুলিশ। পরে বিকেলে লক্ষ্মীপুর মজুচৌধুরীর হাট নৌ-পুলিশের পরিদর্শক (ইনচার্জ) বিকাশ চন্দ্র চৌধুরী বাদী হয়ে আটকদের বিরুদ্ধে মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে সদর মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

আটক জোবেদা গোপালগঞ্জ জেলার মোকসেদপুর থানাধীন গুয়াবাহার গ্রামের ইয়াদ আলীর স্ত্রী, বিথি কুমিল্লা জেলার বুড়িচং থানাধীন কাইকার চর গ্রামের মো. সাগরের স্ত্রী ও মাহফুজা একই জেলার চান্দিনা থানাধীন ভোমরকান্দি দক্ষিণ পাড়া গ্রামের মো. জালাল হোসেনের স্ত্রী।

নৌ-পুলিশ জানায়, বাসযোগে ওই তিন নারী কুমিল্লা থেলে মজুচৌধুরীরহাট আসে। তাদের লঞ্চযোগে ভোলায় যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু লঞ্চঘাটে তাদের গতিবিধি সন্দেহজনক ছিল। এসময় ঘাটে দায়িত্বপ্রাপ্ত নৌ-পুলিশের সদস্যরা তাদের আটক করে। পরে একজন নারীকে দিয়ে তাদের দেহ তল্লাশি করা হয়। এতে তাদের দেহে বাঁধা ৩টি প্যাকেট উদ্ধার করা হয়। প্যাকেটগুলোতে ১৫ কেজি গাঁজা ছিল।

লক্ষ্মীপুর মজুচৌধুরীর হাট নৌ-পুলিশের পরিদর্শক (ইনচার্জ) বিকাশ চন্দ্র চৌধুরী জানান, আটক নারীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য তাদের সদর মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়।

কালের আলো/ডিএইচ/কেএ 

Print Friendly, PDF & Email