প্রিমিয়ার লিগে মার্টিনেজের ‘গোলের’ রেকর্ড

প্রকাশিতঃ 8:36 pm | May 14, 2024

স্পোর্টস ডেস্ক, কালের আলো:

এই তো কিছুদিন আগেও অ্যাস্টন ভিলাকে উয়েফা ইউরোপা কনফারেন্স লিগের সেমিফাইনালে তুলতে দারুণ ভূমিকা রেখেছিলেন এমিলিয়ানো মার্টিনেজ। কোয়ার্টার ফাইনালের দ্বিতীয় লেগে লিলের বিপক্ষে টাইব্রেকারে তিনি দুটি পেনাল্টি ঠেকিয়ে ভিলাকে জেতান। সেই আর্জেন্টাইন তারকাই গতকাল বড় ভুল করেছেন। তার আত্মঘাতী গোলে লিভারপুলের বিপক্ষে ৩–৩ গোলে ড্র নিয়ে মাঠ ছেড়েছে ভিলা। এমন ভুলে মার্টিনেজ প্রিমিয়ার লিগেও রেকর্ড করেছেন।

২০২২ কাতার বিশ্বকাপ ফাইনালে ফ্রান্সের বিপক্ষে টাইব্রেকারে বীরত্ব দেখানো মার্টিনেজের এই রেকর্ডটা অবশ্য তার জন্য বিব্রতকর। চলতি মৌসুমে এ নিয়ে তিনি তৃতীয়বারের মতো আত্মঘাতী গোল করলেন। ১৯৯২ সালে প্রিমিয়ার লিগ শুরু হওয়ার পর কোনো গোলরক্ষক তিনটি আত্মঘাতী গোল করেননি। সেই নজির প্রথমবার দেখা গেল আর্জেন্টাইন তারকার কল্যাণে।

আত্মঘাতী গোল করার এমন কীর্তি এর আগে সর্বোচ্চ দু’বার করে দেখা গিয়েছিল প্রিমিয়ার লিগে। ১১ জন গোলকিপার মার্টিনেজের আগপর্যন্ত আত্মঘাতী গোল করেছেন। তারা হচ্ছে— মার্ক বুন, পিটার চেক, শেই গিভেন, রব গ্রিন, ক্যাসপার স্মাইকেল, রাসেল হোল্ট, টম হিটন, টিম ক্রাল, বার্ন্ড লেনো, জুসি জাসকেলাইনেন এবং রিচার্ড রাইট। এছাড়া একটি করে আত্মঘাতী গোল করেছেন ৫৩ জন গোলরক্ষক।

গতকাল মার্টিনেজের ভুলটা ছিল একেবারে শুরুর দ্বিতীয় মিনিটে। লিভারপুলের হয়ে রাইট উইং দিয়ে প্রথম আক্রমণ করেন হার্ভি এলিয়ট। অলরেডদের উইঙ্গার সরাসরি গোলমুখে শট না নিলেও বল যায় মার্টিনেজের হাতে। সেটি ধরার পর নিয়ন্ত্রণ না করতে পেরে নিজেদের জালেই বল জড়িয়ে বসেন অ্যাস্টন ভিলার গোলরক্ষক। শুরুতেই ১-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে টেবিলের চারে থাকা দলটি। শেষ পর্যন্ত ভিলা ড্র নিয়ে মাঠ ছাড়ে।

চলতি মৌসুমে মার্টিনেজ প্রথম নিজেদের জালে বল জড়ান ২০২৩ সালের ফেব্রুয়ারিতে, আর্সেনালের বিপক্ষে। মৌসুমের প্রথম দিকে লুটন টাউনের বিপক্ষে দ্বিতীয়বার নিজেদের জালে বল জড়িয়েছিলেন। গতরাতে একই কাজ করে রেকর্ড সঙ্গী করেছেন দিবু। এমন রেকর্ড হয়তো তিনি নিজেও স্মরণে আনতে চাইবেন না।

এখন পর্যন্ত চলতি প্রিমিয়ার লিগের পয়েন্ট টেবিলে চারে থাকায় আগামী মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার সম্ভাবনা জোরালো হয়েছে অ্যাস্টন ভিলার। বিশেষত লিভারপুলকে রুখে দিয়ে তারা আশা বাঁচিয়ে রেখেছে। তবে জিততে পারলে, তাদের অবস্থান আরও শক্ত হতে পারত। শেষ ম্যাচে ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে জয় পেলেই চলবে ভিলার, তবে হারলেও সুযোগ থাকবে। টটেনহ্যাম তাদের শেষ দুই ম্যাচের একটিতেও পা হড়কালে ভিলার শেষ চার নিশ্চিত হয়ে যাবে।

কালের আলো/এমএএইচ/ইউএইচ

Print Friendly, PDF & Email