ক্রিস্টালের কাছে একহালি গোল হজম করলো ম্যানইউ

প্রকাশিতঃ 2:23 pm | May 07, 2024

স্পোর্টস ডেস্ক,কালের আলো:

নিজেদের ফুটবল ইতিহাসে সম্ভবত এর চেয়ে আর বড় কোনো লজ্জায় পড়েনি ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ইতিহাসে এই প্রথম একই মৌসুমে দুই লেগেই ক্রিস্টাল প্যালেসের কাছে হারতে হয়েছে ম্যানইউকে। সোমবার রাতে নিজেদের মাঠ সেলহার্স্ট পার্কে ম্যানইউর জালে গুনে গুনে চারবার বল জড়িয়েছে ক্রিস্টাল প্যালেস।

এর আগে মৌসুমের শুরুতে, গত সেপ্টেম্বরে ম্যানইউর মাঠ ওল্ড ট্রাফোর্ডে এসে ১-০ গোলে হারিয়ে গিয়েছিলো ক্রিস্টাল। এবারের পরাজয়টা সবচেয়ে বেশি লজ্জার। চারবার গোল হজম করতে হয়েছে তাদেরকে। ম্যানেজার এরিক টেন হাগের ওপর চাপ যে আরও বাড়লো, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

ম্যানইউর ডিফেন্স যে কতটা দুর্বল হয়ে পড়েছে, তার উদাহরণ ব্রাজিল তারকা ক্যাসেমিরোকে খেলতে হয়েছে সেন্টারব্যাক হিসেবে। এ কারণেই মূলত ম্যানইউর ডিফেন্স এতবার ভাঙতে সক্ষম হয়েছে ক্রিস্টালের ফুটবলাররা। যেখানে মিখায়েল ওলিসি করেছেন জোড়া গোল। জিন ফিলিপ মাতেতা এবং তাইরিক মিচেল করেছেন বাকি দুই গোল।

৩৫ ম্যাচ শেষে ম্যানইউর পয়েন্ট এখন ৫৪। তারা রয়েছে অষ্টম স্থানে। ৬ষ্ঠ স্থানে থাকা নিউ ক্যাসলের চেয়ে ২ পয়েন্ট পিছিয়ে। এই অবস্থানেই থেকে যদি লিগ শেষ করতে হয়, তাহলে ম্যানইউর কপালে আগামী মৌসুমে ইউরোপিয়ান কোনো টুর্নামেন্টেই খেলার সুযোগ থাকবে না। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ তো না’ই, সঙ্গে ইউরোপা লিগও মিস হতে পারে তাদের। ক্রিস্টাল প্যালেস রয়েছে ১৪তম স্থানে। ৩৬ ম্যাচ শেষে তাদের পয়েন্ট ৪৩।

মূলত ইনজুরি সমস্যায় ভুগছে ম্যানইউ। বেশ কয়েকজন ফুটবলার রয়েছেন ইনজুরিতে। যার মধ্যে রয়েছেন পর্তুগিজ তারকা ব্রুনো ফার্নান্দেজ। ম্যানইউতে ২৩০ ম্যাচের ক্যারিয়ারে এই প্রথম ইনজুরির কারণে কোনো ম্যাচ মিস করছেন তিনি।

ম্যাচ শেষে দলের মিডফিল্ডার বিবিসিকে বলেন, ‘অনেক বড় হতাশার একটি ম্যাচ। দিনটা আমাদের ছিল না। আমরা কোনোভাবে ইনজুরির বিষয়গুলোকে পরিবর্তন করতে পারবো না।’

প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে এই প্রথম কোনো মৌসুমে ম্যানইউ ১৩টি ম্যাচ হেরেছে। এমনকি স্কোরলাইনও খুব হতাশাজনক। নতুন কোচ অলিভার গ্ল্যাসনারের অধীনে যখন দারুণ সাফল্যের সন্ধান পাচ্ছে ক্রিস্টাল, তখন ম্যানইউ কোচ টেন হাগ চরম হতাশায় ভুগছেন।

ম্যাচের ১২তম মিনিটেই লিড নিয়ে নেয় স্বাগতিক ক্রিস্টাল। মিখায়েল ওলিসি গোল করেন। ৪০ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করেন জিন ফিলিপ মাতেতা। ৫৮ মিনিটে ৩-০ করে ফেলেন তাইরিক মিচেল। ৬৬তম মিনিটে নিজের জোড়া এবং দলের চতুর্থ গোল করেন মিখায়েল ওলিসি।

কালের/আলো/একে/এমবি

Print Friendly, PDF & Email