অত্যাবশ্যকীয় পণ্য নিয়ন্ত্রণ আইন যুগোপযোগী করা হবে : বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ 3:11 pm | March 04, 2024

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

অত্যাবশ্যকীয় পণ্য নিয়ন্ত্রণ আইন ১৯৫৬’ যুগোপযোগী করা হবে বলে জানিয়েছেন বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টিটু৷

সোমবার (০৪ মার্চ) সকালে ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে জেলা প্রশাসক সম্মেলন ২০২৪ এর দ্বিতীয় দিনের চতুর্থ অধিবেশনে বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয়ের কার্য অধিবেশন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমাদের মন্ত্রণালয় থেকে মূলত প্রস্তাবনা ছিল দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে তারা (ডিসি) কীভাবে ভূমিকা রাখতে পারে এবং তাদের পক্ষ থেকে একটি প্রস্তাবনা ছিল ১৯৫৬ এর নিত্যপ্রয়োজনী কমিউনিটির যে আইন সেটা যুগোপযোগী করা এবং সেখানে যে পণ্যগুলো আছে, সেগুলো আপডেট করা।

তিনি বলেন, আমরাও তাদের সঙ্গে একমত। আমরা অচিরেই বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকদের নিয়ে একটি মিটিং করে কীভাবে এ আইনটাকে আরও যুগোপযোগী করা যায়, পণ্যের তালিকাটাকে কীভাবে সুন্দর করা যায়, সেটি করবো।

রোববার (৩ মার্চ) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের শাপলা হলে চার দিনের জেলা প্রশাসক(ডিসি) সম্মেলন-২০২৪ এর উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সম্পর্কিত কার্য-অধিবেশনে আন্তর্জাতিক বাজারে রপ্তানিযোগ্য পণ্য বহুমুখীকরণ, চামড়াজাত শিল্পের উন্নয়ন ও চামড়া রপ্তানির বিষয়ে গুরুত্ব দেওয়া, রোজার মাস সামনে রেখে তেল, চিনি ও চালের দাম নিয়ন্ত্রণ, প্রকল্প বাস্তবায়নে ভূমি অধিগ্রহণের বিষয়টি দ্রুত নিষ্পত্তি করা এবং সার্বজনীন পেনশন স্কিম বাস্তবায়ন ত্বরান্বিত করার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে বলে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে।

এবারের সম্মেলনের আলোচ্য সূচিতে থাকছে ৩৫৬ প্রস্তাব। প্রস্তাবগুলোর জনসেবা বৃদ্ধি, জনদুর্ভোগ হ্রাস করা, রাস্তাঘাট ও ব্রিজ নির্মাণ, পর্যটনে বিকাশ, আইন- কানুন বা বিধিমালা সংশোধন, জনস্বার্থ সংক্ষণের বিষয়গুলো অগ্রাধিকার ভিত্তিতে করা হয়েছে। এর মধ্যে সর্বোচ্চ ২২টি প্রস্তাব পড়েছে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ থেকে। সম্মেলনে সর্বমোট অধিবেশন ৩০টি। এর মধ্যে কার্য-অধিবেশন ২৫টি (১টি উদ্বোধন অনুষ্ঠান, ১টি স্পীকারের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ এবং মতবিনিময় এবং ১টি প্রধান বিচারপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ এবং সদয় নির্দেশনা গ্রহণ এবং অন্যান্য অনুষ্ঠানিকতা ২টি। এছাড়া অংশগ্রহণকারী কার্যালয়: ১টি (প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়)।

এবারের ডিসি সম্মেলনে প্রথমবারের মতো সাবেক মন্ত্রিপরিষদ সচিবরা বিভাগীয় কমিশনার ও ডি‌সি‌দের কাছে তাদের অভিজ্ঞতা তুলে ধরবেন ও প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেবেন।

কালের আলো/ডিএস/এমএম

Print Friendly, PDF & Email