বঙ্গবন্ধু ম্যারাথনের দৃষ্টিনন্দন লোগো, বিশ্ববাসী জানবে বাঙালির ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি

প্রকাশিতঃ 7:13 pm | December 10, 2023

বিশেষ সংবাদদাতা, কালের আলো :

ক্যানভাসে বাঙালির অমোঘ বিশ্বাসের নাম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মুখ। ইতিহাসের মহানায়কের চমৎকার অভিব্যক্তি। সাদা-কালো ছবিটির পাশে রক্তের দামে কেনা লাল-সবুজের পতাকা। পাশেই দু’দৌড়বিদের ম্যারাথন। এসবের মাঝখানে দেশের মানুষের গর্ব আর আস্থার প্রতীক বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর লোগো। নিচে লেখা ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন-২০২৪’।

ঠিক যেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর স্পর্শ। দৃষ্টিনন্দন এমন অবয়বেই প্রস্তুত করা হয়েছে ২০২৪ সালের জানুয়ারিতে রাজধানীতে অনুষ্ঠিতব্য বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন’র লোগো। রোববার (১০ ডিসেম্বর) ঢাকা সেনানিবাসস্থ আর্মি মাল্টিপারপাস কমপ্লেক্সে বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল ড.এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন-২০২৪ এর লোগো উন্মোচন করেন।

এ সময় সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে সাথে এগিয়ে যাচ্ছে আমাদের ক্রীড়াঙ্গন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মরণে বাঙালি জাতিসত্তা, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতিকে বহির্বিশ্বের সামনে উপস্থাপন করা ও যুব সমাজকে স্বাস্থ্যসম্মত জীবন ধারায় উদ্বুদ্ধ করা হলো বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন-২০২৪ এর মূল লক্ষ্য।’

এ সময় সেনাবাহিনীর চীফ অব জেনারেল স্টাফ (সিজিএস) লেফটেন্যান্ট জেনারেল আতাউল হাকিম সারওয়ার হাসান, কোয়ার্টার মাস্টার জেনারেল (কিউএমজি) লেফটেন্যান্ট জেনারেল মো. সাইফুল আলমসহ অন্যান্য উর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তা, বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব, বাংলাদেশ অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশনের কর্মকর্তারা ও ম্যারাথনের স্পন্সররা উপস্থিত ছিলেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মরণে চতুর্থবারের মতো বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে আয়োজন হতে যাচ্ছে এই ম্যারাথন। আন্ত:বাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) জানায়, বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন নতুন বছরের ২৬ জানুয়ারি ৩০০ ফিট তথা শেখ হাসিনা স্বরণীতে অনুষ্ঠিত হবে। রোববার (১০ ডিসেম্বর) থেকে এই ম্যারাথনের রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়েছে যা আগামী ১০ জানুয়ারি পর্যন্ত সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

উল্লেখ্য, লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানের পর মিডিয়া ব্রিফিং করেন সেনাসদরের সামরিক প্রশিক্ষণ পরিদপ্তরের পরিচালক এবং আয়োজক কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ও রেস ডিরেক্টর ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ আশরাফুজ্জামান সিদ্দিকী। এতে বলা হয়, দুটি ভাগে এই ম্যারাথন পরিচালনা করা হবে। ৪২ দশমিক ১৯৫ কিলোমিটার ফুল ম্যারাথন ও ২১ দশমিক ০৯৭ কিলোমিটার হাফ ম্যারাথনে অংশ নেবেন ৩০ জন এলিট রানার ও দক্ষিণ এশিয়াসহ বিদেশি ৬০ জনসহ দেশি-বিদেশি রানার।

 

এবারের ম্যারাথনে তিনটি ক্যাটাগরিতে পুরুষ ও নারী বিভাগে পুরস্কার দেওয়া হবে। এলিট ও সাফ দৌড়বিদদের ফুল ম্যারাথন ও বাংলাদেশি দৌড়বিদদের ফুল ও হাফ ম্যারাথন ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেয়া হবে। প্রতিযোগিতায় ১০ পুরুষ ও নারী এলিট রানার, ১০ পুরুষ ও নারী সাফ রানার, ৩০ বাংলাদেশি পুরুষ ও নারী ফুল ম্যারাথন এবং ২০ বাংলাদেশি পুরুষ ও নারী হাফ ম্যারাথনারকে আকর্ষণীয় সম্মাননা দেওয়া হবে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, এবারের আয়োজনে সার্বিক দায়িত্ব পালন করবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। এছাড়াও কো-অর্গানাইজার হিসেবে থাকবে আর্মি স্পোর্টস কন্ট্রোল বোর্ড, ট্রাস্ট ইনোভেশন লিমিটেড ও নেটওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ লিমিটেড। টেকনিক্যাল পার্টনার হিসেবে থাকছে বাংলাদেশ অ্যাথলেটিকস ফেডারেশন। দেশের শীর্ষস্থানীয় ব্যাংক ও বিমা প্রতিষ্ঠান এই ম্যারাথনের গোল্ড স্পন্সর হিসেবে থাকবে।

কালের আলো/এমএএএমকে

Print Friendly, PDF & Email