সীমান্তের অতন্দ্র প্রহরী হিসেবে কাজ করে যাওয়ার নির্দেশ বিজিবি ডিজির

প্রকাশিতঃ 6:44 pm | October 19, 2023

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

বিজিবির প্রতিটি সদস্যকে ‘সীমান্তের অতন্দ্র প্রহরী’ হিসেবে সর্বোচ্চ পেশাদারিত্বের সাথে কাজ করে যাওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) মহাপরিচালক মেজর জেনারেল এ কে এম নাজমুল হাসান।

বৃহস্পতিবার (১৯ অক্টোবর) কুমিল্লা সেক্টরের ক্ষুদ্রাস্ত্র ফায়ারিং রেঞ্জে অনুষ্ঠিত ‘বিজিবি ফায়ারিং প্রতিযোগিতা-২০২৩’ এর চূড়ান্তপর্বে বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ শেষে তিনি এ নির্দেশনা দেন।

এ সময় বিজিবি মহাপরিচালক বলেন, ‘সীমান্তের অতন্দ্র প্রহরী’ বর্ডারগার্ড বাংলাদেশ একটি ঐতিহ্যবাহী ও চৌকস সীমান্তরক্ষী বাহিনী। এ বাহিনী দেশের ‘ফার্স্ট লাইন অব ডিফেন্স’ বা প্রথম সারির প্রতিরক্ষা নিশ্চিতকল্পে সার্বক্ষণিক সীমান্তে নিয়োজিত রয়েছে।

সীমান্ত সুরক্ষা এবং যুদ্ধক্ষেত্রে শত্রুকে ধ্বংসের মাধ্যমে বিজয় ছিনিয়ে আনার জন্য বিজিবি’র প্রতিটি সৈনিককে অস্ত্র চালনায় দক্ষতা অর্জন করতে হবে। প্রশিক্ষণের মাধ্যমে এই দক্ষতা অর্জনের মূলমন্ত্র হচ্ছে -‘এক বুলেট, এক শত্রু’। তাই বিজিবিতে আয়োজিত সকল প্রতিযোগিতার মধ্যে ফায়ারিং প্রতিযোগিতা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ।

বিজিবি মহাপরিচালক প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্ব উপভোগ করেন এবং চ্যাম্পিয়ন ও রানার আপ দলের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন।

বিজিবি’র সরাইল রিজিয়নের সার্বিক তত্ত্বাবধানে এবং কুমিল্লা সেক্টরের ব্যবস্থাপনায় গত ১৭ অক্টোবর তারিখে বিজিবি ফায়ারিং প্রতিযোগিতা শুরু হয়। প্রতিযোগিতায় বিজিবি’র ৫টি রিজিয়ন ও ০১টি স্বতন্ত্র সেক্টর থেকে আগত মোট ০৬টি দলের সর্বমোট ৭২ জন প্রতিযোগী অংশগ্রহণ করে। ০৩ দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত এ ফায়ারিং প্রতিযোগিতায় সরাইল রিজিয়ন চ্যাম্পিয়ন এবং কক্সবাজার রিজিয়ন রানার আপ হয়। এছাড়া ফায়ারিংয়ে ব্যক্তিগত নৈপূণ্য প্রদর্শন করে কক্সবাজার রিজিয়নের বলিপাড়া ব্যাটালিয়ন (৩৮ বিজিবি) এর সিপাহি মুন্নাফ হাসান ১ম শ্রেষ্ঠ ফায়ারার এবং সরাইল রিজিয়নের সরাইল ব্যাটালিয়ন (২৫ বিজিবি) এর ল্যান্স নায়েক স্বাধীন কুমার ২য় শ্রেষ্ঠ ফায়ারার নির্বাচিত হয়।

কালের আলো/বিএসবি/এমএইচ

Print Friendly, PDF & Email