পুলিশ সদস্যদের প্রেরণা হিসেবে কাজ করে তাদের সহধর্মিণীরা: শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিতঃ 5:58 pm | January 05, 2023

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

পুলিশ সদস্যদের সহধর্মিণীরা স্বামীদের সহযোগিতার পাশাপাশি নানাবিধ কাজ করেন বলে মন্তব্য করেছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি।

তিনি বলেছেন, বাংলাদেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। পুলিশ সদস্যরা দেশের নিরাপত্তার পাশাপাশি দেশের উন্নয়নে সহযোগিতা করছেন।আর এক্ষেত্রে সবচেয়ে বেশি প্রেরণা হিসেবে কাজ করেন তাদের সহধর্মিণীরা।

বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) দুপুরে রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সে বাংলাদেশ পুলিশ অডিটোরিয়ামে পুলিশ সপ্তাহ-২০২৩ উপলক্ষে পুনাকের বার্ষিক সমাবেশ ও আনন্দমেলা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সব প্রতিবন্ধকতা পেরিয়ে বাংলাদেশ পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে। মানুষের অনুপ্রেরণার সবচেয়ে বড় জায়গা হচ্ছে তার ঘর। সেখানে শান্তি-অনুপ্রেরণা থাকলে মানুষ বাইরে তার কাজের জায়গায় সাফল্য লাভ করে। কাজেই ওই সাফল্যের আপনারা বড় অংশীদার।

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, কোনো একটি সমাজ, কোনো একটি রাষ্ট্রের যদি এগিয়ে যেতে হয়, সেখানে নারী পুরুষের সমান অংশীদারিত্ব লাগে, সমান অংশগ্রহণ লাগে। অর্ধেক মানুষকে পিছনে ফেলে একটি সমাজ কখনো তার যে সম্ভাবনা আছে তাকে বাস্তবায়ন করতে পারে না।

পুনাকের নানা কার্যক্রমের প্রশংসা করে তিনি বলেন, পুনাক নানা ধরনের সামাজিক কাজ করছে। জনসচেতনতার জন্য নানা কাজ করছে। এর পাশাপাশি বিভিন্ন পণ্য উৎপাদন করছে, যাতে অনেকের অর্থনৈতিক অবস্থা ভালো হচ্ছে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন লুৎফুল তাহমিনা খান। সভাপতিত্ব করেন পুনাকের সভানেত্রী তৈয়বা মুসাররাত জাঁহা চৌধুরী।

এছাড়া পুনাকের ২০২২ সালের বার্ষিক প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন সাধারণ সম্পাদিকা নাসিম আমিন। ২০২১-২২ অর্থ বছরের আর্থিক প্রতিবেদন পেশ করেন কোষাধ্যক্ষ নাফিস সিদ্দিকী।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে লুৎফুল তাহমিনা খান বলেন, পুনাক ১৯৮৬ সাল থেকে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে নারীদের স্বাবলম্বী করতে নানামুখী কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। এতে নারীরা স্বাবলম্বী হয়ে দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখছে। তিনি বলেন, পুনাক সকল ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। দেশ ও জনগণের কল্যাণে কাজ করছে।

সভাপতির বক্তব্যে পুনাকের সভানেত্রী তৈয়বা মুসাররাত জাঁহা চৌধুরী বলেন, পুলিশ সপ্তাহ-২০২৩ উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী পুনাক স্টল পরিদর্শন করেছেন, এটা আমাদের জন্য অত্যন্ত গর্বের। এতে পুনাকের সকল সদস্য অনুপ্রাণিত ও উজ্জীবিত।

তিনি বলেন, পুনাক নারীদের কল্যাণে কাজ করছে। পুলিশ পরিবারের সদস্যদের বাইরেও পুনাকের কার্যক্রম সুধীমহলে ব্যাপক প্রশংসিত হয়েছে। জেলা পর্যায়েও পুনাকের কার্যক্রম দৃশ্যমান রয়েছে। ভবিষ্যতে পুনাকের কার্যক্রম আরও বৃদ্ধি করা হবে।

প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, আপনারা আজকের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে আমাদেরকে সম্মানিত করেছেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি পুনাক পরিবারের সদস্যদের সন্তানদের শিক্ষাবৃত্তি, কোরআন তেলওয়াত, সংগীত, চিত্রাংকন, নৃত্য, আবৃত্তি, কম্পিউটারসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে কৃতিত্বের জন্য পুরস্কার প্রদান করেন।

এছাড়া পুনাকের শিল্পীরা মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশনা করে।

পুনাকের কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য এবং বিভিন্ন জেলা থেকে আগত পুনাকের জেলা সভানেত্রী ও সদস্যরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

কালের আলো/বিএএ/এমএ

Print Friendly, PDF & Email