একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সাঁজোয়া কোরের সদস্যদের প্রস্তুত থাকার আহ্বান সেনাপ্রধানের

প্রকাশিতঃ 12:52 am | September 30, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

আধুনিক ও যুগোপযোগী প্রশিক্ষণের মাধ্যমে একবিংশ শতাব্দীর চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় সাঁজোয়া কোরের সকল সদস্যদের সদা প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল ড. এসএম শফিউদ্দিন আহমেদ।

বৃহস্পতিবার (২৯ সেপ্টেম্বর) সকালে বগুড়ার মাঝিরা সেনানিবাসে আর্মড কোর সেন্টার অ্যান্ড স্কুলের সাঁজোয়া কোরের ৪২তম বাৎসরিক অধিনায়ক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।

এর আগে সেনাবাহিনী প্রধান আর্মার্ড কোর সেন্টার এন্ড স্কুলে পৌঁছালে তাঁকে স্বাগত জানান ভারপ্রাপ্ত জিওসি, আর্মি ট্রেনিং এন্ড ডকট্রিন কমান্ড মেজর জেনারেল এস এম কামরুল হাসান এবং জিওসি ১১ পদাতিক ডিভিশন ও এরিয়া কমান্ডার বগুড়া এরিয়া মেজর জেনারেল মোঃ খালেদ-আল-মামুন।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, এ সময় সেনাবাহিনী প্রধান মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে আত্মদানকারী সাঁজোয়া কোরের বীর শহিদদের স্মরণে নির্মিত স্মৃতিস্তম্ভ ‘সাঁজোয়া চিরন্তন’ এ পুস্পস্তবক অর্পণ করেন।

এছাড়া সেনাবাহিনী প্রধান বার্ষিক অধিনায়ক সম্মেলনে উপস্থিত সাঁজোয়া কোরের ইউনিটসমূহের অধিনায়ক এবং অন্যান্য কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন এবং সাঁজোয়া কোরের উন্নয়ন, পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধি ও দেশে-বিদেশে পরিচালিত কার্যক্রম বিষয়ে মতবিনিময় করেন।

আইএসপিআর জানিয়েছে, সাঁজোয়া কোরের ৪২তম বাৎসরিক অধিনায়ক সম্মেলনে সেনাপ্রধানের উপস্থিতিতে এই কোরের সদস্যদের মাঝে নতুন উদ্দীপনা সৃষ্টি এবং কোরের প্রতিটি সদস্যের মাঝে আগামী দিনে দেশসেবার অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপনের প্রত্যয় পুনর্ব্যক্ত হয়েছে।

সম্মেলনে সেনাসদর, ভারপ্রাপ্ত আর্মি ট্রেনিং এ্যান্ড ডকট্রিন কমান্ড, স্থানীয় ফরমেশন এবং সাঁজোয়া কোরের ঊর্ধ্বতন সামরিক কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আইএসপিআর আরও জানায়, একই দিন সেনাবাহিনী প্রধান আর্মি মেডিক্যাল কলেজ বগুড়া ক্যাম্পাস এর উদ্বোধন করেন এবং বিভিন্ন বিভাগ ও বিদ্যমান সুযোগ সুবিধাসমূহ পরিদর্শন করেন।

এ সময় জিওসি ১১ পদাতিক ডিভিশন ও এরিয়া কমান্ডার বগুড়া এরিয়া সহ সেনাবাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, কলেজের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় সেনাপ্রধান ড. এসএম শফিউদ্দিন আহমেদ বলেন, বহুমাত্রিক শিক্ষা প্রণয়নে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সকল সময়ে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছে।

তিনি শিক্ষার্থীদেরকে দক্ষ ও যোগ্যরূপে গড়ে ওঠার মধ্য দিয়ে আগামী দিনের সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণে উদ্বুদ্ধ করেন।

এছাড়া সেনাবাহিনী প্রধান সকলের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় আর্মি মেডিক্যাল কলেজ বগুড়া দেশের অন্যতম মেডিক্যাল কলেজ হিসেবে উপনীত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

কালের আলো/বিএস/এমএম

Print Friendly, PDF & Email