প্রথমবারের মতো চাকরি মেলা, অবসরপ্রাপ্তদের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগাতে চান সেনাপ্রধান (ভিডিও)

প্রকাশিতঃ 12:16 am | May 25, 2022

বিশেষ সংবাদদাতা, কালের আলো:

একজন সেনা সদস্য অবসরে গেলেও তাঁর চাকরি করার বয়স থাকে। চাকরিরত অবস্থায় বাহিনীতে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ নিয়ে অর্জিত দক্ষতা অবসরের পর অনেকেই ঠিক তেমনভাবে কাজে লাগাতে পারেন না। যোগ্যতা সত্ত্বেও অনেকেই বিকল্প কর্মসংস্থানের অভাব অনুভব করেন।

কিন্তু সুদক্ষ, সুশৃঙ্খল এবং বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষিত অবসরপ্রাপ্ত সেনাসদস্যদের অভিজ্ঞতাকে দেশের উন্নয়নে ব্যবহারেই এবার জোর দিয়েছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল ড.এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। তাঁর নির্দেশেই ঢাকা সেনানিবাসে প্রথমবারের মতো অবসরপ্রাপ্ত সেনাসদস্য এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হচ্ছে ‘চাকরি মেলা’।

মঙ্গলবার (২৪ মে) দু’দিনব্যাপী এই চাকরি মেলার উদ্বোধন করেছেন সেনাপ্রধান। তিনি মনে করেন, ‘অবসরের পরেও সেনা সদস্যদের দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা দেশের কল্যাণে কাজে লাগানোর সুযোগ রয়েছে। চাকরি প্রত্যাশী ও চাকরিদাতাদের সহজ যোগাযোগের মাধ্যম হয়ে উঠবে এই মেলা।’

সেনাবাহিনীর অ্যাডজুটেন্ট জেনারেল শাখার কল্যাণ ও পুনর্বাসন অধিদপ্তরের ব্যবস্থাপনায় এই মেলায় ৬০ টি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান অংশ নিচ্ছে। এদিন সেনাপ্রধান মেলায় আসা বিভিন্নজনের সঙ্গে মতবিনিময়ের পাশাপাশি বিভিন্ন স্টল ঘুরে দেখেন।

এ সময় সেনাবাহিনীর অ্যাডজুটেন্ট জেনারেল (এজি) মেজর জেনারেল মো.মোশফেকুর রহমানসহ উচ্চ পদস্থ সেনা কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সেনাবাহিনী প্রধান মেলায় অংশগ্রহণকারীদের উদ্দেশ্যে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘পেশাগত জীবনে দক্ষতা বাড়াতে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ নিয়ে থাকেন সেনা সদস্যরা। অবসরে গেলেও সেনা সদস্যদের চাকরি করার বয়স থাকে। এটি শুধু কর্মকর্তা নয় জেসিওসহ অন্যান্য র‍্যাঙ্কের জন্য প্রযোজ্য। অবসরের পর নিজেদের মেধা, দক্ষতা দিয়ে তারা দেশের জন্য বিভিন্নক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে পারে।’

সেনাপ্রধান জেনারেল শফিউদ্দিন আরও বলেন, ‘এই সুদক্ষ জনশক্তিকে সুশীল সমাজে প্রতিষ্ঠিত করার প্রয়াসে এই মেলার আয়োজন করা হয়েছে। সুদক্ষ, সুশৃঙ্খল এবং বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষিত ও অভিজ্ঞতা সম্পন্ন অবসরপ্রাপ্ত সেনাসদস্যরা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নেও অগ্রগামী ভূমিকা রাখতে পারবে। এবারের মেলা থেকে অর্জিত অভিজ্ঞতা ভবিষ্যতে বিবেচনায় নেওয়া হবে।’

সেনাবাহিনীর উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তা, অবসরপ্রাপ্ত, অবসরগামী ও চাকরিরত সেনাসদস্যের পরিবারের সদস্যরাও উদ্বোধনের পরপরই মেলা পরিদর্শন করেন। মেলায় অংশ নেওয়া প্রতিষ্ঠানসমূহ এবং বিশেষ করে অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের মাঝে সেনাবাহিনীর ইতিহাসে প্রথমবারের মতো আয়োজিত এই মেলাকে ঘিরে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা তৈরি হয়েছে।

আন্ত:বাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) জানিয়েছে, সেনাসদস্যদের পেশাদারিত্ব বৃদ্ধির লক্ষ্যে চাকরিকালীন সময় বিভিন্ন ধরণের প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। প্রশিক্ষণসমূহ যুদ্ধকেন্দ্রিক হলেও সেগুলো শান্তিকালীন সময়ে দেশ ও জাতি গঠনে উপযোগী এবং সেনাবাহিনী ছাড়াল অন্যান্য ব্যবসায়িক ও সামাজিক প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন ক্ষেত্রের জন্য প্রযোজ্য। অনেক অবসরপ্রাপ্ত সেনাসদস্য বর্তমানে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে নিয়োজিত থেকে সুনামের সাথে চাকরি করছেন।

সেনাসদস্যদের যোগ্যতাকে প্রতিষ্ঠানের সাথে পরিচয় করিয়ে দেওয়ার মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানসমূহকে দক্ষ জনবল নিয়োগে সহায়তা করা ও অবসরপ্রাপ্ত সেনাসদস্যদের জন্য কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করাই এই চাকুরী মেলার মূল উদ্দেশ্য বলেও জানায় আইএসপিআর।

কালের আলো/বিএসবি/এমএন

Print Friendly, PDF & Email