কৃষকের ধান কেটে দিলো ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগ

প্রকাশিতঃ 9:51 pm | April 28, 2021

অনিক খান, কালের আলো:

করোনার মহামারি ঠেকাতে ‘লকডাউন’ পরিস্থিতিতে শ্রমিক না পেয়ে বিপাকে পড়েছিলেন কৃষক মো রুবেল মিয়া। শ্রমিক সংকটের কারনে ক্ষেতের পাকা ধান কাটতে না পারায় ফসল নষ্ট হওয়ার উপক্রম হয়ে পড়েছিলো। এমন অবস্থায় কৃষকের দুশ্চিন্তার অবসান ঘটিয়ে কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছে ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগ।

জেলা ছাত্রলীগ নেতা তানভীর যোবায়ের ইসলাম তারিনের নেতৃত্বে পবিত্র রমজানের রোজা রেখে তীব্র তাপদাহের মধ্যেই কৃষক রুবেল মিয়ার ধান কেটে দিয়েছে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

বুধবার (২৮ এপ্রিল) ময়মনসিংহ নগরীর কিসমত এলাকার অসহায় কৃষক মো রুবেল মিয়ার ৫ কাঠা জমির পাকা ধান কেটে বাড়িতে পৌঁছে দেয় তারা।

ধান কাটায় ছাত্রলীগ নেতা অমিত সাহা, আজিম উদ্দিন, কাজী রাফিউল করিম, নাঈম শান্ত, নাদিম হোসাইনসহ ছাত্রলীগের ৪০-৫০ জন নেতাকর্মী অংশ নেন।

কৃষক মো: রুবেল মিয়া কালের আলোকে বলেন, করোনার কারনে শ্রমিক সংকটের কারণে আমার ৫ কাঠা জমির পাকা ধান কাটতে পারছিলাম না। ধান পাকার পরও তা কাটতে না পারায় অনেক দুশ্চিন্তায় ছিলাম। দু’দিন আগে টিভিতে দেখেছি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ছাত্রলীগ কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছে এবং কৃষকের ধান কেটে তা ঘরে তুলে দিচ্ছে।

তিনি বলেন, তা দেখেই আমার অসহায়ত্বের কথাটি ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগ নেতা তারিন ভাইকে জানাই। আমার এমন অসহায়ত্বের কথা শুনে ছাত্রলীগ নেতা তারিন ভাই আজ ভোর সকালে ৪০-৫০ জন নেতাকর্মী সঙ্গে নিয়ে এসে সারাদিন ফসল কেটে বিকেলে ঘরে তুলে দেন। এই বিপদের দিনে ছাত্রলীগ নেতা তারিন ভাইয়ের এমন সাহায্য কথা আমি কখনও ভুলব না।

ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের মেধাবী ও পরিশ্রমী ছাত্রনেতা তানভীর যোবায়ের ইসলাম তারিনের সঙ্গে কথা হয় কালের আলোর এই প্রতিবেদকের।

তিনি জানান, কৃষক রুবেল মিয়া জমির পাকা ধান কাটতে না পেরে বিপাকে পড়েন। তাঁর অসহায়ত্বের কথা শুনে জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে এ ধান কেটে দিয়েছি।

তারিন বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায়, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নির্দেশে ও আমাদের শ্রদ্ধেয় অভিভাবক ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সংগ্রামী সভাপতি এডভোকেট মোঃ জহিরুল হক খোকা, ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোঃ আমিনুল হক শামীম (সি আই পি) ও ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের জননন্দিত মেয়র মোঃ ইকরামুল হক টিটু মহোদয়ের অনুপ্রেরণায় ও সার্বিক সহযোগিতায় অসহায় ও দরিদ্র কৃষকদের ধান কেটে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেই। এ সংকটকালে প্রয়োজনে খবর পেলে এমন আরও অসহায়দের ধান কেটে দেব আমরা জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

কালের আলো/এসজে/এমএম

Print Friendly, PDF & Email