বঙ্গবন্ধু সেতু, ঢাকা-টাঙ্গাইল-ময়মনসিংহ মহাসড়কে তীব্র যানজট

প্রকাশিতঃ 9:51 am | July 08, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

পবিত্র ঈদুল আজহার ছুটির প্রথম দিন শুক্রবার (৮ জুলাই) সকাল থেকে ঘরমুখো যাত্রীদের চাপ বাড়ছে ঢাকা ময়মনসিংহ ও ঢাকা টাঙ্গাইল মহাসড়কে। এছাড়া বঙ্গবন্ধু সেতুতেও যান চলাচলে চাপ লক্ষ করা গেছে।

একই সঙ্গে মহাসড়ক দুটিতে যানবাহনের চাপও ধীরে ধীরে বাড়ছে। বিশেষ করে গাজীপুরের টঙ্গী থেকে চন্দনা চৌরাস্তা পর্যন্ত ১২ কিলোমিটার সড়কের বিভিন্ন অংশে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

এছাড়া চন্দনা চৌরাস্তা থেকে কালিয়াকৈরের চন্দ্রমোড় পর্যন্ত সড়কের বিভিন্ন জায়গায় রাত থেকে থাকা যানজট এখনো বিদ্যমান।

যানজটের কারণে ঘরমুখো মানুষ, বিশেষ করে নারী ও শিশুরা বিপাকে পড়েছে। গন্তব্যে যেতে দুই থেকে তিনগুণ বেশি সময় লাগছে।

এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম জানান, সেতুর পশ্চিম পাশে ১৭ নম্বর পিলারের কাছে বাস-পিকআপের সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছে। এতে এক ঘণ্টা ৪০ মিনিট টোল আদায় বন্ধ রাখে সেতু কর্তৃপক্ষ। এ ছাড়া অতিরিক্ত যানবাহনের চাপ রয়েছে। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে যান চলাচল স্বাভাবিক হবে বলে তিনি জানান।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার ট্রাফিক আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, টঙ্গী থেকে গাজীপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত এবং চৌরাস্তা থেকে কোনাবাড়ী পর্যন্ত মহাসড়কে যানজটের জন্য ট্রাফিক পুলিশ এবং থানা পুলিশ কাজ করে যাচ্ছে। শুক্রবার সকাল থেকেই মহাসড়কে যাত্রী এবং পরিবহনের বেশ চাপ রয়েছে। যাত্রীদের নির্বিঘ্নে গন্তব্যে পৌঁছানোর জন্য পুলিশ সবরকম চেষ্টা করে যাচ্ছে।

এদিকে টঙ্গী ব্রিজ থেকে চন্দনা চৌরাস্তা পর্যন্ত ১২ কিলোমিটার সড়কে বিআরটি প্রকল্পের কাজ চলমান থাকায় মহাসড়কের মাঝখানের দুটি লেন বন্ধ রয়েছে। যার কারণে মহাসড়কে পূর্ব এবং পশ্চিম পাশের দুটি সিঙ্গেল লেন দিয়ে বিপুলসংখ্যক যানবাহন চলাচল করতে হচ্ছে। ফলে মহাসড়কে যানবাহনের সারি বেশ দীর্ঘ হচ্ছে। এ কারণে বৃহস্পতিবার দুপুর পর থেকেই শুক্রবার সকাল পর্যন্ত ওই মহাসড়কে তীব্র যানজট আছে।

কালের আলো/বিএস/এমএম

Print Friendly, PDF & Email