খালে ময়লা ফেলা সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করার আহ্বান মেয়র আতিকের

প্রকাশিতঃ 8:38 pm | March 31, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

অনেক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে লাউতলা-রামচন্দ্রপুর খাল উদ্ধার করা হয়েছে উল্লেখ করে লাউতলা-রামচন্দ্রপুর খাল পরিষ্কার রাখা ও তদারকির জন্য বিশেষ টিম গঠন এবং সিসি ক্যামেরা বসানো হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) সকালে রাজধানীর মোহাম্মদপুরে পুনরুদ্ধারকৃত লাউতলা খালের শুভ উদ্বোধন ও খাল দূষণ রোধে জনসাধারনের অংশগ্রহনমূলক কার্যক্রমে প্রধান অতিথির বক্তব্যে (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম এ কথা বলেন।

মেয়র অতিথিদের সঙ্গে নিয়ে চারটি ইঞ্জিনচালিত নৌকায় চড়ে লাউতলা থেকে প্রায় সাড়ে তিন কিলোমিটার পথ ভ্রমণ করে রামচন্দ্রপুরে বুড়িগঙ্গা নদীর সংযোগস্থলে পৌঁছান।

নৌকায় চড়ে খালটি পরিদর্শণ শেষে মেয়র বলেন, ৪৫ মিনিটের এই যাত্রাপথটি নৌযানে পৌছাতে মাত্র ছয় মিনিট সময় লাগবে। আমরা সিটি কর্পোরেশন থেকে প্রাথমিকভাবে ২০টি ইঞ্জিনচালিত নৌকার লাইসেন্স প্রদান করবো এই পথে যাত্রী পারাপারের জন্য।

নগরবাসীর উদ্দেশ্যে তিনি বলেছেন, আমরা কাজ করতে গিয়ে দেখেছি মানুষ এই খালকে ডাস্টবিন বিন হিসেবে ব্যবহার করছে। এই খালে পলিথিন, পুরনো সোফা, কার্পেট, চটের বস্তাসহ বাসা-বাড়ির সকল ধরনের ময়লা ফেলা হয়েছে। খালে ময়লা ফেলা সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করতে হবে। এই খাল দিয়ে নৌযান চলবে, মাছের চাষ হবে এবং জীববৈচিত্র্য রক্ষা পাবে।

মেয়র বলেন, প্রায় ১৪ মাস আগে আমরা ঢাকা ওয়াসা থেকে ২৯টি খাল বুঝে পাই। এরপর থেকেই দেখছি ‘দখল’ আর ‘দূষণ’র কবলে খালগুলো মৃতপ্রায়। খালে স্বচ্ছ পানিপ্রবাহ দেখার অভিপ্রায় নিয়ে কাজ করছি নিরন্তর।

আতিকুল ইসলাম বলেন, নৌকায় চড়ে আমি দেখেছি অসংখ্য খামার ও বাড়ির বর্জ্য সরাসরি এই খালে গিয়ে পরছে।খামারি ও বাড়ির মালিকদের হুশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, আপনারা ব্যবসা করবেন কিন্তু এই খালের ও শহরের ক্ষতি করবেন না। শুধু নিজের স্বার্থের কথা না ভেবে সকলের কথা চিন্তা করবেন, এই শহরের কথা চিন্তা করবেন।

তিনি বলেন, এই খালটির এতোদিন সঠিক তদারকি ছিল না। এখন এই খালটির দায়িত্ব নিয়েছে সিটি কর্পোরেশন। খালের সীমানা নির্ধারণের কাজ চলমান। খালের সীমানার মধ্যে যত স্থাপনা থাকবে সব ভেংগে ফেলা হবে। সীমানা নির্ধারণ হলে এই খালের পার দিয়ে ওয়াকওয়ে এবং সবুজায়ন করা হবে। যদি জায়গা বেশি পরিমান থাকে সেক্ষেত্রে সাইকেল লেনও করা হবে।

ডিএনসিসির প্রধান বর্জ্য কর্মকর্তা কমডোর এস এম শরিফ-উল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন শেখ বজলুর রহমান, সভাপতি, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামীলীগ, ডিএনসিসির কাউন্সিলরবৃন্দ, প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মুহ. আমিরুল ইসলামসহ অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

কালের আলো/এমএইচ/জেআর

Print Friendly, PDF & Email