প্রধানমন্ত্রী দেশের মানুষকে যাদু দেখিয়েছেন : পরিকল্পনামন্ত্রী

প্রকাশিতঃ 6:23 pm | October 13, 2021

কালের আলো সংবাদদাতা:

বাংলাদেশ পারমাণবিক যুগে প্রবেশ করেছে জানিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের মানুষকে যাদু দেখিয়েছেন। গত পরশু রূপপুরে যে কাণ্ড হয়েছে সেটা অনেকেই জানে না। আমরা পারমাণবিক যুগে প্রবেশ করেছি। আমাদের অনেকের মাথায় আসছে না প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কী যাদু দেখিয়েছেন পাবনার রূপপুরে। এর আগেও শেখ হাসিনা অনেক যাদু দেখিয়েছেন বাংলাদেশকে। বাংলাদেশের প্রথম যাদুকর ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তিনি আমাদের স্বাধীনতা দিয়ে যাদু দেখিয়েছেন।

তিনি বলেন, আমরা যখন উন্নয়নের মহাশিখরে তরতরিয়ে ওপরে উঠতে থাকি ঠিক তখনই একটি গোষ্ঠী উন্নয়নের বিরোধিতা করে। তারা দেশের উন্নয়নকে বিশ্বাস করে না। তারা প্রায়ই বলে বেড়ায়, আমরা নাকি ভোট করব না। এসব কথা স্বাধীন দেশের জনগণ কখনই মানবে না। আইনকানুন মেনে আওয়ামী লীগকেও রাজনীতি করতে হবে, অন্যদেরও করতে হবে।

বুধবার (১৩ অক্টোবর) ফরিদপুরের মুন্সিবাজারে নারী উন্নয়ন ফোরাম আয়োজিত কম্পিউটার প্রশিক্ষণ উদ্বোধন ও প্রশিক্ষণ সমাপ্তকারীদের মধ্যে সেলাই মেশিন বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এম এ মান্নান বলেন, শেখ হাসিনা বন্দুক দিয়ে ক্ষমতায় আসেনি। তাকে যেমন ভোটে যেতে হবে, অন্যদেরও তেমনি নির্বাচনে যেতে হবে। তারা যখন বলে ভোট হতে দেবে না, সেটা কী অন্যায় কথা নয়। কেউ বেআইনি কথা বললে আইনি বিচার হবে। দেশের উন্নয়নের জোয়ার ধরে রাখতে হলে শেখ হাসিনার পাশে থাকতে হবে। তাকে নির্বাচিত করে আবারও ক্ষমতায় আনতে হবে।

তিনি বলেন, আমরা স্বাধীন জাতি। কারো গোলাম হব না। পাকিস্তান, ব্রিটিশ, ভারত, জাপান, সৌদি আরবসহ আমরা আর কারও গোলাম হব না।

পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, কোনো রাজনৈতিক দলের বিরুদ্ধে আমরা নই, একটি দল ছাড়া। যারা বাংলাদেশের অস্তিত্বকে স্বীকার করে না, রাজাকারের দল। যে দল দেশের সৃষ্টির সময় থেকে বিরোধিতা করেছে, তারাই আমাদের সবকিছুতে বিরোধিতা করে।

তিনি বলেন, তারা নারী-পুরুষের ব্যবধান করেছে, ধনী-গরিবের ব্যবধান করেছে, শহর-গ্রামের ব্যবধান করেছে। এই ব্যবধানকারী দল, জঙ্গিবাদী দল, যারা খুন-হত্যা আগুনে বিশ্বাস করে তাদের সঙ্গে আওয়ামী লীগ আপস করবে না। শেখ মুজিব তাদের সঙ্গে আপস করেননি, শেখ হাসিনাও করবেন না। আমার বিশ্বাস সাধারণ মানুষও তাদের বিশ্বাস করবেন না।

কালের আলো/এমএইচএ/বিআরবিএ

Print Friendly, PDF & Email