দুই কনস্টেবলকে চড়, যুব মহিলা লীগ নেত্রী আটক

প্রকাশিতঃ 11:04 pm | March 14, 2020

কালের আলো প্রতিবেদক:

গাজীপুরে চান্দনা এলাকায় উল্টো পথে গাড়ি চালিয়ে যাচ্ছিলেন গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সংরক্ষিত কাউন্সিলর ও মহানগর যুব মহিলা লীগের আহ্বায়ক রুহুন্নেছা রুনা। এতে বাধা দেওয়ায় ট্রাফিক পুলিশের দুই পুলিশ কনস্টেবলকে চড়-থাপ্পড় মারেন তিনি।

এ ঘটনায় শনিবার(১৪ মার্চ) দুপুরে গাজীপুর মেট্রো পলিটন এলাকার বাসন থানা পুলিশ রুহুন্নেছা রুনাকে আটক করে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ সূত্র জানায়, চান্দনা চৌরাস্তা মোড়ে ইউন্টার্ন ও উল্টো পথে গাড়ি চালানো বন্ধে রশি টানিয়ে রাখা ছিল। কাউন্সিলর রুহুননেছা ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে রশি সরিয়ে ইউন্টার্ন নেওয়ার চেষ্টা করেন।

এ সময়ে সেখানে কর্তব্যরত ট্রাফিক পুলিশ সদস্য তাকে থামান। রুহুন নেছা নিজেকে কাউন্সিলর হিসাবে পরিচয় দিলেও পুলিশ তাকে ইউন্টার্ন নিয়ে উল্টো পথে গাড়ি নিতে বাধা দেন।

পরে উভয়ের মধ্যে বাগ্‌বিতণ্ডার সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে রুহুননেছা উত্তেজিত হয়ে ওই ট্রাফিক পুলিশের গালে চর দিয়ে বসেন এবং পুলিশ সদস্যের ইউনিফর্মের শার্টের বোতাম ছিঁড়ে ফেলেন।

পরে সেখানে থাকা ট্রাফিক পুলিশ বক্সে থেকে আরও পুলিশ এসে তাকে আটক করে বসিয়ে রেখে বাসন থানা-পুলিশকে খবর দেন। খবর পেয়ে পুলিশ দুপুর আড়াইটার দিকে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে যান।

কাউন্সিলর রুহুননেছা বলেন, চান্দনা চৌরাস্তা এলাকায় অনেকেই উল্টোপথে যাতায়াত করে থাকে। একটি অনুষ্ঠানে যাওয়ার জন্য তাদেরকে নিজের পরিচয় দিয়ে অনুরোধ করলেও তারা কথা রাখেনি। একপর্যায়ে পুলিশ এমন আচরণ করছিল যেন আমার উপড়ে এসে পড়বে। তখন নিজেকে রক্ষা করতে চর দিয়েছি।

বাসন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম কাউছার চৌধুরী জানান, ওই নেত্রী পুলিশকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আমরা পুলিশ পালি, দুই টাকার পুলিশ একজন নির্বাচিত কাউন্সিলরকে বাধা দেয়’। ওই নেত্রীকে আটক করে থানা হেফাজতে রাখা রয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

কালের আলো/এনআর/এমএম

Print Friendly, PDF & Email