ডেঙ্গুকে হাতিয়ার করে বেশি টাকা নিলেই ব্যবস্থা: তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশিতঃ 9:41 pm | August 02, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলোঃ

মানবিক বিবেচনায় সার্বক্ষণিক ডেঙ্গু রোগীদের পাশে থাকার জন্য চিকিৎসকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

তিনি বলেছেন, কতিপয় চিকিৎসক ডেঙ্গুকে মহামারি হিসেবে ব্যবহার করে ব্যবসার চেষ্টা করছে। কোন হাসপাতাল নির্ধারিত টাকার বেশি নিলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শুক্রবার(২ আগস্ট) বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশন (বিএফডিসি) চত্বরে পরিচ্ছন্নতা ও মশক নিধন অভিযান উদ্বোধনকালে তথ্যমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বেশীর ভাগ চিকিৎসক মানবিক বিবেচনায় ডেঙ্গু রোগীদের পাশে দাঁড়িয়েছেন, তবে চিকিৎসকদের একটি মহল ডেঙ্গুকে মহামারি হিসেবে ব্যবহার করে ব্যবসার চেষ্টা করছে। চিকিৎসক নেতাদের অবশ্যই পদক্ষেপ নিতে হবে, যাতে কেউ ডেঙ্গুকে মহামারি হিসেবে ব্যবহার করে ব্যবসা করতে না পারে।

তিনি বলেন, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ ইতোমধ্যেই জনগণের পাশে দাঁড়িয়েছে এবং তাদের সদস্যদের নির্দেশনা দিয়েছে, প্রয়োজনে তারা বিনা ফি’তে ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসা দেবে।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, এডিস মশার কারণে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে বহু লোক হাসপাতালে ভর্তি হয়ে অথবা তাদের বাসায় চিকিৎসা গ্রহণ করছে। ডেঙ্গু প্রতিরোধে সরকার ইতোমধ্যেই পদক্ষেপ নিয়েছে, তবে প্রত্যেককেই নিজ নিজ বসতবাড়ির চত্বর এবং আশপাশ এলাকা পরিচ্ছন্ন করতে হবে । পাশাপাশি মশার প্রজনন ক্ষেত্র ধ্বংস করতে হবে যাতে ভয়ঙ্কর এডিস মশার বিস্তার না ঘটে।

‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতোমধ্যেই সকলে মিলে ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবেলায় কর্তৃপক্ষকে নির্দেশনা দিয়েছেন। এ কারনে সরকারের পাশাপাশি আওয়ামী লীগও ডেঙ্গু পরিস্থিতি মোকাবেলায় কার্যক্রম গ্রহণ করেছে।’

মন্ত্রী বলেন, ডেঙ্গুর বিস্তার রোধে চলচ্চিত্র শিল্পীদের অংশগ্রহণে আজকের এই পরিচ্ছন্নতা ও মশক নিধন অভিযান দেশবাসীকে উদ্বুদ্ধকরণে সহায়ক হবে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ডেঙ্গু ছড়িয়ে পড়ার বিষয় গুজব ছড়ানো হচ্ছে এবং একটি স্বার্থান্বেষী মহল ভবিষ্যতেও গুজব ছড়ানোর চেষ্টা চালাবে এ কথা উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী কোন গুজবে কান না দেয়ার জন্য জনগণের প্রতি আহ্বান জানান।

এসময় তথ্যসচিব আবদুল মালেক, অতিরিক্ত সচিব মিজান উল আলম, বিএফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আব্দুল করিম,চলচ্চিত্র তারকা ইলিয়াস কাঞ্চন, রোজিনা, দিলারা, অঞ্জনা, রিয়াজ, ফেরদৌস, রোকেয়া প্রাচী, শাহনূর, জায়েদ খান, জয় চৌধুরী, শিপন, আঁচল, তানহা এবং প্রযোজক খোরশেদ আলম খসরু, আবু মুসা দেবু, পরিচালক মুশফিকুর রহমান গুলজার, বদিউল আলম খোকন, সাংস্কৃতিক সংগঠক অরুণ সরকার রানা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কালের আলো/আরআর/এ

Print Friendly, PDF & Email