চিকিৎসকদের ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে গেছে : বিএমএ

প্রকাশিতঃ 7:20 pm | November 24, 2020

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নতুন সর্বোচ্চ কর্মকর্তা যোগদানের পর থেকেই একের পর এক সিদ্ধান্ত নিয়েছেন অভিযোগ করে বাংলাদেশ মেডিক্যাল এ্যাসোসিয়েশন জানিয়েছে, এসব কারনে চিকিৎসকদের ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে গেছে।

মঙ্গলবার(২৪ নভেম্বর) সংগঠনটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এক বিবৃতিতে এসব অভিযোগ করেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নতুন সর্বোচ্চ কর্মকর্তা যোগদানের পর থেকেই একের পর এক বিতর্কিত, বিভ্রান্তিমূলক ও অজ্ঞতাপ্রসূত মন্তব্যের মাধ্যমে আমাদের পেশার মান মর্যাদাকে ক্রমাগত আঘাত করছেন। তিনি অভিভাবক না হয়ে প্রশাসকের রুদ্রমূর্তিতে শাসকের ভাষায় কথা বলেন, যা ঔপনিবেশিক আমলাতন্ত্রের আচরণকেই স্মরণ করিয়ে দিচ্ছে। মহামান্য আদালতের রায় থাকা স্বত্ত্বেও বহুল প্রত্যাশিত চিকিৎসক সুরক্ষা আইন প্রণয়নে বাঁধা সৃষ্টি করে প্রকারান্তরে আমলাতন্ত্রকে ক্রমাগত চিকিৎসক নিগ্রহের পথকে সুগম করে দিচ্ছে।

অপরদিকে আমলাতন্ত্র চর দখলের মতো চিকিৎসক ক্যাডারের গুরুত্বপূর্ণ পদ দখল করে নিচ্ছে। স্বাস্থ্য ব্যবস্থার অসংখ্য দুর্বলতা চিকিৎসকদের ঘাড়ে চাপিয়ে দিয়ে আমলাতন্ত্র সরকার জনগণ ও চিকিৎসকদের মুখোমুখি করে দিয়ে নিজেরা অনবরত ফায়দা লুটার চেষ্টা করছে’।

বিএমএ আমলাদের এমন আচরণে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘চিকিৎসকদের ধৈর্যের বাঁধ ভেঙে গেছে’। সেইসাথে এই সমস্ত ঘটনায় প্রশাসন দায়ী উল্লেখ করে বলেন, এর জন্য ঘুনে ধরা প্রশাসনযন্ত্রই একমাত্র দায়ী।

কালের আলো/এসবি/এমএ

Print Friendly, PDF & Email