২ হাজার ৩০০ বছর পুরোনো বৌদ্ধবিহার দেখে মুগ্ধ ৩৪ কূটনীতিক

প্রকাশিতঃ 10:08 pm | February 28, 2024

কালের আলো প্রতিবেদক:

কক্সবাজার শহর থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে রামুর রাজারকুল পাহাড়ে ঐতিহাসিক রাংকুট বনাশ্রম বৌদ্ধবিহার পরিদর্শন করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের ৩৪ কূটনীতিক ও মিশনপ্রধান। বুধবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সকালে সড়কপথে বিদেশি অতিথিরা বৌদ্ধবিহার দেখতে যান। খ্রিষ্টপূর্ব ২৬৮ অব্দে নির্মিত স্থাপনাটি দেখে অতিথিরা মুগ্ধ হন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে দুই দিনব্যাপী ‘এম্বেসেডরস আউটরিচ প্রোগ্রাম’ এর শেষ দিনে আজ রাষ্ট্রদূতগণ কক্সবাজারের বিভিন্ন স্থান পরিদর্শন করেন।

এর আগে মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি’র নেতৃত্বে ‘এম্বাসেডরস আউটরিচ প্রোগ্রাম’ এ কূটনৈতিকগণ চট্টগ্রামের নেভাল একাডেমি এবং কর্ণফুলী টানেল পরিদর্শন শেষে বিশেষ ট্রেনে চড়ে কক্সবাজার পৌঁছান।

সকালে রাংকুট বনাশ্রম বৌদ্ধ তীর্থস্থান আসলে অতিথিদের স্বাগত জানান বিহারাধ্যক্ষ কে শ্রী জ্যোতিসেন মহাথেরো। তিনি কূটনীতিকদের সামনে বিহারের ঐতিহাসিক বিবরণ উপস্থাপন করেন। বিহারাধ্যক্ষ এই অঞ্চলের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বহুকালের ঐতিহ্য বিদেশের মিশন প্রধানদের জানান।

পরিদর্শনকালে মিশন প্রধানগণ বুদ্ধাস্থি সম্বলিত ঋদ্ধিময় বুদ্ধবিম্ব পরিদর্শন করেন এবং সেখানে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। তারা বিহারের বিভিন্ন স্থানে সংরক্ষিত বৌদ্ধ পুরাকীর্তিগুলো ঘুরে দেখেন। পরে অতিথি কূটনীতিকদের সম্মানে স্থানীয় শিশু-কিশোররা গান ও নৃত্য পরিবেশন করে। স্থানীয় পিঠা পুলি আর ফলমূল দিয়ে কূটনীতিকদের আপ্যায়িত করা হয়।

কক্সবাজার সফরের অনুভূতি প্রকাশকালে বিভিন্ন মিশনের প্রধানগণ বাংলাদেশের পর্যটন খাতের অপার সম্ভাবনার কথা জানান। ‘এম্বেসেডরস আউটরিচ প্রোগ্রাম’ বাংলাদেশের পর্যটনের সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে তারা মত দেন। বাংলাদেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি সারা বিশ্বের জন্য একটি অসাধারণ নজীর বলে তারা উল্লেখ করেন।

বিহারাধ্যক্ষ জ্যোতিসেন’এম্বেসেডরস আউটরিচ প্রোগ্রাম’ আয়োজনের জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে ধন্যবাদ জানান। এ ধরনের কর্মসূচি বিদেশেীদের নিকট বাংলাদেশ সম্পর্কে ধারণা আরও উঁচু করবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

পরে কূটনৈতিকরা কক্সবাজারের লাবণী ট্যুরিস্ট মার্কেট পরিদর্শন করেন। তারা সেখানে বিভিন্ন হস্তশিল্পজাত পণ্যের দোকান ঘুরে দেখেন এবং স্যুভিনির কেনেন। বিকেলে বাংলাদেশ বিমানের ফ্লাইটে কূটনৈতিকগণ ঢাকায় ফিরেন। অতিরিক্ত পররাষ্ট্র সচিব ড. নজরুল ইসলামসহ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, রাশিয়া, চীন, কোরিয়া, ইতালি, ডেনমার্ক-সহ বিভিন্ন দেশ ও আন্তুর্জাতিক সংস্থার ২৪ জন মিশন প্রধানসহ ৩৪ জন কূটনৈতিক সদস্য এই আউটরিচ কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করেন।

কালের আলো/ডিএস/এমএম

Print Friendly, PDF & Email