ইন্দোনেশিয়ায় ফুটবল স্টেডিয়ামে সংঘর্ষে নিহত ১২৭

প্রকাশিতঃ 10:33 am | October 02, 2022

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, কালের আলো:

ইন্দোনেশিয়ায় ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে পদদলিত কমপক্ষে ১২৯ জন নিহত হয়েছেন। ম্যাচ শেষে সমর্থকেদের মধ্যে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ার পর পদদলিত হয়ে প্রাণহানির এই ঘটনা ঘটে। এছাড়া এই ঘটনায় আরও প্রায় ২০০ জন আহত হয়েছেন। রোববার (২ অক্টোবর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

এদিকে দেশটির পুলিশ রোববার (০২ অক্টোবর) এক বিবৃতিতে জানায়, শনিবার রাতে পূর্বাঞ্চলীয় মালাং শহরের কানজুরুহান স্টেডিয়ামে ফুটবল ম্যাচে আরেমা ফুটবল ক্লাবের দর্শকরা পারসেবায়া সুরেবায়া দলের কাছে ৩-২ গোলে হেরে যাবার পর মাঠে নেমে পড়ে। পুলিশ এসময় ‘দাঙ্গা’ নিয়ন্ত্রণে টিয়ার গ্যাস ছোঁড়ে যার ফলে হুড়োহুড়ি করতে গিয়ে পদদলিত ও দমবন্ধ হয়ে মারা যান ১২৭ জন। খবর আল-জাজিরার।

পূর্ব জাভার পুলিশ প্রধান নিকো আফিনতা জানান, ৩৪ জন লোক স্টেডিয়ামের ভিতরে মারা যান আর বাকীরা মারা যান হাসপাতালে। নিহতদের মধ্যে দুজন ‍পুলিশও সদস্যও রয়েছেন।

তিনি বলেন ‘ঘটনার পরপর দশর্কদের সবাই স্টেডিয়াম থেকে বের হওয়ার রাস্তায় যেতে থাকে। এর ফলে সেখানে জটলার সৃষ্টি হয় আর প্রচণ্ড ভীড়ে দম বন্ধ হয়ে অক্সিজেনের অভাবে তারা মারা যান।’

এই ঘটনার পরপরই ইন্দোনেশিয়ার ফুটবলের শীর্ষ বিআরআই লিগা কর্তৃপক্ষ এক সপ্তাহের জন্য খেলা বাতিল করেছে। এই ম্যাচে আরেমা ক্লাব চির প্রতিপক্ষ পারসেবায়া সুরাবায়ার কাছে দুই যুগেরও বেশি সময় পরে হেরে যায়।

ইন্দোনেশিয়া সরকার এই ঘটনায় ক্ষমা প্রার্থনা করেছে এবং পদদলিতের ঘটনাকে কেন্দ্র করে পুরো পরিস্থিতির তদন্তের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

দেশটির যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী জাইনুদিন আমালি বলেন, ‘আমরা ঘটনার জন্য দুঃখিত…এটা আমাদের ফুটবলের জন্য একটি দুঃখজনক ঘটনা আর তা ঘটলো এমন একটি সময়ে যখন মানুষ স্টেডিয়ামে গিয়ে আবারও ফুটবল খেলা দেখতে শুরু করেছে।’

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমরা ম্যাচের সাংগঠনিক বিষয়সহ দর্শকদের উপস্থিতির বিষয়গুলোকে বিশদভাবে মূল্যায়ন করবো। আমরা এটাও আলোচনা করবো খেলার সময় স্টেডিয়ামে দর্শক প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হবে কিনা।’

কালের আলো/ডিএসবি/এমএম

Print Friendly, PDF & Email