রজতজয়ন্তীতে পদার্পণ, উৎসবহীন গণ বিশ্ববিদ্যালয়

প্রকাশিতঃ 5:31 pm | July 14, 2022

গবি প্রতিনিধি, কালের আলো:

সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের (গবি) ২৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী আজ ১৪ জুলাই। দুই যুগ পেরিয়ে নিম্ন-মধবিত্তের প্রতিষ্ঠানটি এবার ২৫তম বর্ষ তথা রজতজয়ন্তীতে পদার্পণ করেছে।

ঈদের ছুটি থাকায় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নেই কোনো বিশেষ আয়োজন বা সাজসজ্জা। শুধু এবার নয়, দীর্ঘ ৬ বছর কোন আয়োজন ছিল না। সর্বশেষ বিশ্ববিদ্যালয় দিবস পালন করা হয়েছিল ২০১৬ সালে। সেটাও হয়েছিল ২৮ জুলাই, নির্ধারিত দিনে নয়। কারণ ঐ বছর ১৪ জুলাই ঈদের ছুটির মাঝে পড়েছিলো।

১৯৯৮ সালের ১৪ই জুলাই স্বনামধন্য বেসরকারি প্রতিষ্ঠান গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রকল্প হিসেবে সাভারের বংশী নদীর তীরে যাত্রা শুরু করে এই বিদ্যাপীঠ। ২০১৬ সালের পর্যন্ত দিনটি উদযাপিত হয়ে আসছিল গণ বিশ্ববিদ্যালয় দিবস হিসেবে।

কিন্তু শেষ ৬ বছর নানা কারণে এই দিনটি গবি প্রশাসনের কাছে উপেক্ষিত। এর মধ্যে ২০২০ ও ২১ সাল করোনা মহামারিতে পার হয়। এর আগে, ২০১৯ সালে এই সময় বৈধ উপাচার্যের দাবিতে ক্যাম্পাসে অচলবস্থা ছিল।

অর্ধ যুগ ধরে দিবসটি পালন না করায় ক্ষুব্ধ সাধারণ শিক্ষার্থীরা। স্বাস্থ্য বিজ্ঞান অনুষদের মো: ইউনুস রিয়াজ বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের সাফল্যের কথা বললে অনেক বলা যাবে কিন্তু এ সাফল্য যার জন্য এসেছে আমরা তাকে ভুলে গিয়েছি। অনেক নতুন শিক্ষার্থী আজকের ‘গণ বিশ্ববিদ্যালয় দিবস’ সম্পর্কে জানেনা। আমরা এই দিনটি ভুলে সামনে আগাতে পারিনা। আশা করি ছুটি শেষ হলে প্রশাসন আবার দিনটি উদযাপনের সুযোগ করে দিবেন।’

ভেটেরিনারি এন্ড এনিমেল সায়েন্সেস অনুষদের সাবেক শিক্ষার্থী মো. কিরণ হোসেন বলেন, ‘৫ বছরের পড়ালেখা শেষ করলাম। কখনো বিশ্ববিদ্যালয় দিবস পালন দেখলাম না। একটা প্রতিষ্ঠানের জন্য এটা দু:খজনক। এবার রজতজয়ন্তী। আশা করি, ছুটি শেষে বড় পরিসরে উদযাপন করা হবে।’

সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক ড. মো. আবুল হোসেন বলেন, ‘আমরা এটি নিয়ে অনেক আগেই বসেছিলাম। ঈদের ছুটিতে শিক্ষার্থীরা না থাকায় কোনো আয়োজন রাখা সম্ভব হয়নি। তবে ক্যাম্পাস চালুর পর বিশেষভাবে দিনটি পালন করবো।’

কালের আলো/ডিএস/এমএম

Print Friendly, PDF & Email