এ আর রহমানের কণ্ঠে ‘জয় বাংলা’য় মুগ্ধ প্রধানমন্ত্রী, করলেন ভিডিও

প্রকাশিতঃ 10:08 am | March 30, 2022

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো:

অস্কারজয়ী সঙ্গীতশিল্পী এ আর রহমানের সুরের ছন্দে মাতোয়ারা হওয়ার অপেক্ষায় যখন দর্শকরা, তখন বেরসিক বৃষ্টি এসে যেন ছন্দ হারা করে দেয়। একটু ভোগান্তি আর সময়ক্ষেপণ ছাড়া একেবারে ছন্দহীন করতে পারেনি এই বৃষ্টি। দেড় ঘণ্টা সময় ছিনিয়ে নিয়ে বৃষ্টি থেমে যায়, দর্শক সারি হতে শুরু করে শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের প্রেসিডেন্ট বক্সে থাকা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও যেন সুরের জাদুকরের তালে হারিয়ে যান।

‘জয় হো’ দিয়ে শুরু করেন এ আর রহমান। মাঝে কালজয়ী কিছু গানসহ মঞ্চ মাতান কাওয়ালি গানে। তখনো অপেক্ষা তার কণ্ঠে বাংলা গান শোনার। যেটি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) নিজ উদ্যোগে বানিয়েছিল ‘ক্রিকেট সেলিব্রেটস মুজিব হান্ড্রেড’ কনসার্টে গাওয়ার জন্য। দর্শকদের আসনে থাকা শ্রোতাদের জিজ্ঞাসা বাড়তে থাকে, কখন গাওয়া হবে বাংলা গান? অবশেষে রাত সাড়ে ১১টার দিকে আসে সেই মহেন্দ্রক্ষণ।

জুলফিকার রাসেলের লেখা ‘জয় বাংলা, জয় বাংলাদেশ’ গানটি গাওয়ার আগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শদ্ধা জ্ঞাপণ করেন এ আর রহমান। এ ছাড়া শেখ হাসিনা, শেখ রেহানা, বিসিবি ও বিসিবি প্রেসিডেন্টের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। জয় বাংলা স্লোগানে কাঁপিয়ে তোলেন শের-ই-বাংলা। এ আর রহমান যখন কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছিলেন, তখন প্রেসিডেন্ট বক্সে থাকা প্রধানমন্ত্রী দাঁড়িয়ে যান। সঙ্গে ছিলেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনও। বাংলায় গাওয়া গানটি গেয়ে পুরো স্টেডিয়ামে থাকা দর্শকদের আবেগে ভাসান বিখ্যাত এই শিল্পী। মুগ্ধ প্রধানমন্ত্রী পুরো গান দাঁড়িয়ে থেকে শুধু শোনেননি, ভিডিও করে রাখেন মুঠোফোনে।

গানটি শুরুর আগে বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন রাহমান। বাংলাদেশের প্রতিও প্রকাশ করেন অকুণ্ঠ ভালোবাসা। এ সময় প্রেসিডেন্ট বক্স হতে মোবাইল ফোনে গানটির ভিডিও ধারণ করতে দেখা যায় প্রধানমন্ত্রীকে।

এর পরই ‘আমার সোনার বাংলা, বলো জয় বঙ্গবন্ধু, বলো জয় জয় বাংলা’ গেয়ে আরেক দফা আবেগে ভাসান রাহমান। এ গানটিও জুলফিকার রাসেলের লেখা।

মুজিববর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বিসিবির উদ্যোগে এ গান দুটি তৈরি হয়।

কালের আলো/এসবি/এমএম

Print Friendly, PDF & Email