পাচ্ছে ২৫০ কোটি টাকা, চ্যালেঞ্জিং পরিবেশে কাজ করতে প্রস্তুত বাংলাদেশ

প্রকাশিতঃ 7:24 pm | July 10, 2019

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের আলো :

সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদের গুরুত্বপূর্ণ যুক্তরাষ্ট্র সফরে আরেকটি সুসংবাদ পেয়েছে বাংলাদেশ। জাতিসংঘ সদর দপ্তরের কাছে বাংলাদেশ সরকারের পাওনা ৫০০ কোটি টাকার (৬০ মিলিয়ন ইউএস ডলার) মধ্যে প্রায় ২৫০ কোটি টাকা পাচ্ছে বাংলাদেশ।

আরও পড়ুন: শান্তি প্রক্রিয়ায় অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপনের জন্য সেনাপ্রধানের প্রশংসা

একই সঙ্গে বাকী ২৫০ কোটি টাকাও দ্রুত সময়ের মধ্যে বাংলাদেশকে পরিশোধের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি জেনারেল ডিপার্টমেন্ট অফ অপারেশনাল সাপোর্ট মিস লিসা এম বাটেনহেইম। এ খবরটি বাংলাদেশের জন্য এসেছে খুশির বারতা নিয়ে।

সোমবার (০৮ জুলাই) বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদের সঙ্গে সাক্ষাতকালে তিনি এমন প্রতিশ্রুতি দেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সেনাবাহিনী প্রধান দীর্ঘদিন যাবত জাতিসংঘ সদর দপ্তরের কাছে সরকারের পাওনা ৫০০ কোটি টাকা দেওয়ার অনুরোধ জানালে তিনি তাৎক্ষণিক ২৫০ কোটি টাকা দেওয়ার অঙ্গীকার করেন। এবং বাকী অর্থও দ্রুত সময়ের মধ্যেই পরিশোধ করার প্রতিশ্রুতির কথা জানান।

দায়িত্বশীল একই সূত্র জানায়, পরদিন মঙ্গলবার (০৯ জুলাই) সেনাবাহিনী প্রধান আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল, পিস অপারেশনস মিস্টার জন পিয়েরে ল্যাক্রয়’র সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করেন। সেনাবাহিনী প্রধান ফরাসি ভাষাভাষী দেশগুলোতে বাংলাদেশের সেনা মোতায়েনের জন্য প্রয়োজনীয় সক্ষমতা অর্জনে বাংলাদেশ সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ সম্পর্কে অবহিত করেন।

আরও পড়ুন: সেনাপ্রধানের প্রস্তাবে সাড়া, বাংলাদেশ থেকে নেওয়া হচ্ছে ফোর্স কমান্ডার

সেনাপ্রধান আন্ডার সেক্রেটারি জেনারেল, পিস অপারেশনসকে জানান, ফ্রান্স ভাষা ব্যবহারকারী দেশগুলোতে বাংলাদেশের সৈন্যদের ঠিকভাবে কাজ করতে দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য বাংলাদেশ সরকার কার্যকর উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। ইতোমধ্যেই মিলিটারি একাডেমিতে তৃতীয় ভাষা হিসেবে ফ্রান্স ভাষা চালু করা হয়েছে এবং জাতিসংঘ মিশনে নিযুক্ত করার আগে ফ্রান্স ভাষার ওপর সৈন্যদের প্রশিক্ষণও দেওয়া হচ্ছে।

চ্যালেঞ্জিং পরিবেশে বিশ্বের যে কোন প্রান্তে সেনা প্রেরণে বাংলাদেশের তাৎক্ষণিক প্রস্তুতির বিষয়েও সেনাবাহিনী প্রধান তাকে অবহিত করে বলেন, জাতিসংঘের ডাকে সাড়া দিয়ে বাংলাদেশে আরো অধিক সৈন্য নিযুক্ত করে আরো প্রতিকূল পরিবেশে কাজ করতে প্রস্তুত।

আরও পড়ুন: পাঁচ দিনের সরকারি সফরে যুক্তরাষ্ট্র যাচ্ছেন সেনাপ্রধান

অ্যাসিস্ট্যান্ট সেক্রেটারি জেনারেল ডিপার্টমেন্ট অফ অপারেশনাল সাপোর্ট মিস লিসা এম বাটেনহেইম জাতিসংঘ মহাসচিবের শান্তিরক্ষায় গৃহীত পদক্ষেপের জন্য বাংলাদেশের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। সেনাপ্রধান তাকে আরো জানান, বাংলাদেশের সৈন্যরা প্রস্তুত নুন্যতম সময়ের মধ্যে বিশ্বের যে কোন প্রান্তে নিযুক্ত হতে। সেনাপ্রধানের এমন বক্তব্যে তিনি আশান্বিত হয়েছেন বলেও জানান।

প্রসঙ্গত, গত শনিবার (৬ জুলাই) ৫ দিনের সরকারি সফরে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ ত্যাগ করেন সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ। জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে দ্বিতীয় বৃহত্তম সৈন্য প্রেরণকারী দেশ হিসেবে বাংলাদেশ বিশ্বশান্তিরক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। সেনাবাহিনী প্রধানের এই পরিদর্শন জাতিসংঘ মিশনে বাংলাদেশের অংশগ্রহণ বৃদ্ধিতে তাৎপর্যপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে জানিয়েছে আইএসপিআর।

কালের আলো/এএ/এমএএএমকে

Print Friendly, PDF & Email